1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০২:৪০ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

খুদে বার্তায় বন্ধ হল বাল্যবিয়ে

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২৯ জুলাই, ২০১৬

ধর্মপাশা প্রতিনিধি ::
ধর্মপাশা উপজেলায় ১২ বছর বয়সি সপ্তম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রী বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে। বৃহস্পতিবার উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য এ বাল্যবিয়ে বন্ধ করেন।
উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, ওই স্কুল ছাত্রী স্থানীয় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। বৃহস্পতিবার বাদ জোহর নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার এক যুবক (২৭) এর সঙ্গে তার বিয়ের আয়োজন করা হয়। এই বিয়ের খবরটি একটি মুঠোফোনের খুদে বার্তার মাধ্যমে একজন ধর্মপাশা থানার ওসি ও স্থানীয় সাংবাদিকদের জানালে তাঁরা এ নিয়ে খোঁজ খবর নিতে থাকেন।
স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছ থেকে এ বাল্যবিয়ে খবর পেয়ে ঘটনার সত্যতা জানতে ও বাল্যবিয়ে বন্ধ করতে ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ নাজমুল হক স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দেন। ইউপি চেয়ারম্যান স্থানীয় এক নবনির্বাচিত ইউপি সদস্যকে এ বাল্যবিয়ে বন্ধ করতে বললে ওই ইউপি সদস্য এ বাল্যবিয়ে বন্ধ করেন।
নবনির্বাচিত ওই ইউপি সদস্য বলেন, মেয়েটির বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছিল। বৃহস্পতিবার বেলা দুইটার দিকে বিয়ে সম্পন্নের কথা ছিল। বরযাত্রীদের জন্য খাবার-দাবারের আয়োজন করা হয়। ট্রলার নিয়ে বরযাত্রী বাড়ি থেকে রওয়ানা হয়। কিন্তু বাল্যবিয়ে বন্ধ করতে সবাই নজরদারি রাখছেন এটি জানাজানি হওয়ার পর তাঁরা পথিমধ্যে থেকে বাড়ি ফিরে গেছেন। আমি খবর পাওয়া মাত্রই বাল্যবিয়েটি বন্ধ করে দিয়েছি।
মেয়েটির বাবা বলেন, মেয়েডা সেভেনে পড়লেও দেখতে হুনতে বড় অইয়া গ্যাছে। বিয়ার বয়স অওয়ার লাইগ্যা সরহারি আইন আছে এইডা আমার জানা আছিইন না।
ধর্মপাশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম কিবরিয়া বলেন, এ বাল্যবিয়ের অনুষ্ঠানের খবরটি মুঠোফোনে খুদে বার্তার মাধ্যমে জানতে পারি। তবে বরের পরিচয় উল্লেখ করা হলেও কনের বিস্তারিত পরিচয় ছিল না। আমি সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি ইউএনও স্যারকে জানিয়েছি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ নাজমুল হক বলেন, ধর্মপাশা থানার ওসি ও সাংবাদিকেরা এ বাল্যবিয়ের খবরটি জানানোর কারণে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সহায়তায় এ বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com