1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০১:৫৯ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

জেএসসি পরীক্ষা নেবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়

  • আপডেট সময় সোমবার, ১৮ জুলাই, ২০১৬

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত প্রাথমিক শিক্ষা হস্তান্তর প্রক্রিয়া শেষ না হলেও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার।
রোববার সচিবালয়ে আয়োজিত সভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার মূল দায়িত্বে থাকবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।
জাতীয় শিক্ষানীতি বাস্তবায়ন ও মনিটরিং কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় গত ১৮ মে প্রাথমিক শিক্ষাকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত উন্নীত করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে অধীনে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। অষ্টম শ্রেণির পর্যন্ত শিক্ষা কার্যক্রমের বিষয়াদি এখনও প্রাথমিক শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে হস্তান্তর প্রক্রিয়া শেষ করতে পারেনি মন্ত্রণালয়।
জেএসসি পরীক্ষা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় গ্রহণ করবে কিনা- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, জেএসসি পরীক্ষা গতবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় নিয়েছে। আমরা দু’দিন আগেও শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত আমাদের আওতায় আসতে এখনও প্রক্রিয়াগতভাবে অনেক কাজ বাকি। যার কারণে আলাদাভাবে বোর্ড তৈরি করে আলাদাভাবে পরীক্ষা নিতে পারবো না। ‘শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সার্বিক সহযোগিতায় এবং আমরা একত্রিতভাবে এই পরীক্ষা নেবো। যদিও এটা পরিচালনার মূল দায়িত্বে থাকবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।’
২০১০ সাল থেকে জেএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে, যাতে প্রায় ২০ লাখ পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে আসছে। প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা সংক্রান্ত জাতীয় স্টিয়ারিং কমিটির সভায় জানানো হয়, আগামী ২০ নভেম্বর এ পরীক্ষা শুরু হয়ে শেষ হবে ২৭ নভেম্বর। প্রাথমিক সমাপনীতে ৩১ লাখ ২৫ হাজার জন ও ইবতেদায়ীতে ৩ লাখ ২০ হাজার জনসহ সম্ভাব্য মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩৪ লাখ ৪৫ হাজার। প্রাথমিক শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়নের লক্ষ্যে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য ২০০৯ সাল এবং ইবতেদায়ীতে এ পরীক্ষা শুরু হয় ২০১০ সালে। সমাপনী পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে।
প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা বাতিলের জন্য প্রস্তাব পাঠানো হলেও গত ২৭ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রস্তাব আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষার নির্দেশনা দিয়ে চলতি বছরও পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়। অষ্টম শ্রেণির সমাপনী ও প্রাথমিকের সমাপনী পরীক্ষা মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্তে হয়ে আসছে। মন্ত্রিসভা যতক্ষণ না পর্যন্ত পরীক্ষা পরিবর্তন না করেন ততক্ষণ পরীক্ষা যথারীতি আগের মতো চলবে বলে জানান মন্ত্রী।
প্রাথমিক শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. হুমায়ুন খালিদ, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আলমগীর, শিক্ষাসহ অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com