1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
রবিবার, ১৫ মে ২০২২, ০৮:১১ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে মোবাইল কোর্ট : পরিবেশমন্ত্রী

  • আপডেট সময় বুধবার, ২২ জুন, ২০১৬

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। এ লক্ষ্যে শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণ বিধিমালা ‘মোবাইল কোর্ট আইনে’র আওতায় আনা হয়েছে।
বুধবার জাতীয় সংসদে এসব তথ্য জানিয়েছেন পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু।
এক প্রশ্নে তিনি বলেন, “আগে মোবাইল কোর্ট আইন-২০০৯ এর আওতায় শব্দ দূষণ (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালাটি অন্তর্ভুক্ত ছিল না বিধায় এ বিষয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণের সুযোগ ছিল না।”
এমন প্রেক্ষাপটে গত ৩ এপ্রিল এক প্রজ্ঞাপনে সরকার বিধিমালাটিকে মাঠ পর্যায়ে প্রয়োগের সুবিধার্থে মোবাইল কোর্ট আইনের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে জানিয়ে পরিবেশমন্ত্রী বলেন, “ফলে এখন থেকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমেও এ বিধিমালার বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে।”
পরিবেশ অধিদপ্তরের মাপকাঠিতে এদেশে ‘শান্তিপূর্ণ’ এলাকায় দিনে ৪৫ এবং রাতে ৩৫ ডেসিবল থাকা উচিত বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এ মাপকাঠিতে আবাসিক এলাকায় দিনে ৫০ এবং রাতে ৪০ ডেসিবল; বাণিজ্যিক এলাকায় দিনে ৬০, রাতে ৫০; কল-কারখানায় দিনে ৭৫ এবং রাতে ৭০ ডেসিবল শব্দমাত্রা সহনীয়।
জাসদের লুৎফা তাহেরের প্রশ্নে পরিবেশমন্ত্রী বলেন, আইন ও বিধি অনুযায়ী নির্ধারিত মান-মাত্রার অধিক শব্দ সৃষ্টি করে শব্দ দূষণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ২০১০ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালিত এনফোর্সমেন্ট অভিযানে ১০৩টি শিল্প ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানকে এক কোটি ৮৯ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ ধার্য করা হয়। এর মধ্যে এক কোটি ৭৭ লাখ টাকা আদায় হয়েছে।
তিনি জানান, গত পাঁচ বছরে পরিবেশ অধিদপ্তর, বিআরটিএ এবং পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের সমন্বয়ে পরিচালিত অভিযানে প্রায় পাঁচ লাখ টাকা জরিমানাসহ গাড়ি থেকে মান-মাত্রা অতিক্রমকারী হর্ন খুলে নেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com