1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
বৃহস্পতিবার, ১২ মে ২০২২, ০৫:৪৪ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

মীর কাসেমকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০১৬

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদন্ড পাওয়া জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী পরিষদের সদস্য মীর কাসেম আলীকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে। সোমবার সকালে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তাকে ঢাকায় নেয়া হয়।
কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর সিনিয়র জেল সুপার প্রশান্ত কুমার বণিক জানান, সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মীর কাসেম আলীকে এ কারাগার থেকে প্রিজনভ্যানে কঠোর নিরাপত্তায় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে।
একাত্তরে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে ২০১২ সালের ১৭ জুন গ্রেফতারের পর ট্রাইব্যুনালের নির্দেশে জামায়াতের কোষাধ্যক্ষ হিসেবে পরিচিত মীর কাসেমকে কারাগারে পাঠানো হয়। পরের বছর ৫ সেপ্টেম্বর অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এ আলবদর কমান্ডারের বিচার প্রক্রিয়া।
ইসলামী ছাত্রশিবিরের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মীর কাসেম আলীর বিরুদ্ধে ১৪টি অভিযোগ আনেন প্রসিকিউশন। পরে বিচার শেষে ১০টি অভিযোগ প্রমাণিত উল্লেখ করে ট্রাইব্যুনাল রায় দেন ২০১৪ সালের ২ নভেম্বর।
এর মধ্যে দুটি অভিযোগে মৃত্যুদন্ড এবং অন্যান্য অপরাধে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয়া হয়। এ রায়ের বিরুদ্ধে একই বছরের ৩০ নভেম্বর আপিল করেন মীর কাসেম আলী। আপিলে তার খালাস চাওয়া হয়।
গত ৮ মার্চ আপিল আংশিক মঞ্জুর করে তার ফাঁসি বহাল রাখেন আপিল বিভাগ। আপিলের রায়ে ১১ নম্বর অভিযোগে তার ফাঁসি বহাল রাখা হয়। এ অভিযোগটি ছিল কিশোর মুক্তিযোদ্ধা জসিমকে অপহরণ, ডালিম হোটেলে তাকে অমানুষিক নির্যাতন করে হত্যা এবং মৃতদেহ কর্ণফুলী নদীতে ফেলে দেয়ার অপরাধ সংক্রান্ত।
সংশ্লিষ্ট বিচারকদের স্বাক্ষরের পর গত ৬ জুন রাত পৌনে ৮টার দিকে তা প্রথমে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এবং পরে মধ্যরাতে ওই পরোয়ানা কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পৌঁছে। ৭ জুন সকালে কারাগারের ফাঁসির সেলে তাকে মৃত্যু পরোয়ানা পড়ে শুনানো হয়। এরপর গত ১১ জুন মীর কাসেম আলীর সঙ্গে তার আইনজীবীরা সাক্ষাৎ করেন। এরপর শনিবার মীর কাসেম আলীর পরিবারের ৯ জন সদস্য কাশিমপুর কারাগারে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।
এছাড়া গত রোববার মীর কাসেম আলী সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় খালাস চেয়ে রিভিউ (রায় পুনর্বিবেচনা) আবেদন করেছেন।
গ্রেফতারের পর ২০১২ সাল থেকে মীর কাসেম আলী কাশিমপুর কারাগারে আছেন। তিনি হাজতবাসকালে ডিভিশনপ্রাপ্ত বন্দির মর্যাদায় ছিলেন। দন্ডপ্রাপ্তির পর তাকে ফাঁসি কনডেম সেলে বন্দি রাখা হয়েছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com