1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৯:৫৫ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

কোহিনূর হত্যাকাণ্ড : জড়িতদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি

  • আপডেট সময় বুধবার, ৮ জুন, ২০১৬

ধর্মপাশা প্রতিনিধি ::
ধর্মপাশা উপজেলার পাইকুরাটি ইউনিয়নের বেখইজোড়া গ্রামে কোহিনূর চৌধুরী (১৮) নামের এক তরুণ নিহত হওয়ার ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও তাদেরকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে উপজেলা পরিষদের সামনের সড়কে এলাকাবাসী এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করেন।
এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার ষষ্ঠ ধাপে উপজেলার পাইকুরাটি ইউনিয়নে (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ওই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে শামছুল হক চৌধুরী মোরগ প্রতীকে ও তৌফিকুল ইসলাম তালুকদার ফুটবল প্রতীকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ওইদিন ভোট গণনা শেষে শামছুল হক চৌধুরী বিজয়ী হয়েছেন এমন খবর ছড়িয়ে পড়লে বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে তৌফিকুল ইসলাম তালুকদারের সমর্থকেরা লাঠিসোঁটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে শামছুল হক চৌধুরীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে গেলে অন্তত ১০জন আহত হন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় শামছুল হক চৌধুরীর পুত্র কোহিনূর চৌধুরী (১৮)-কে ওই রাতে ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করে। এ ঘটনায় গত রোববার বিকেলে নিহত কোহিনূর চৌধুরীর বাবা বাদী হয়ে তৌফিকুল ইসলাম তালুকদার সহ ২৭জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামা আরও ১৫-১৬জনকে আসামি করে ধর্মপাশা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। ওইদিন সকাল ১০টার দিকে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে বেখইজোড়া গ্রামের আফজাল মিয়া (৪৫) ও লোকমান মিয়া (৪৫) কে আটক করে পুলিশ। পরে এ মামলায় তাদেরকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে সোমবার সকালে এ দুই আসামিকে ধর্মপাশা জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে পাঠিয়ে সাতদিনের জন্য রিমান্ডের আবেদন করা হয়। আদালত একদিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শেষে ওই দুই আসামিকে গত মঙ্গলবার সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
গতকাল বুধবার আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য দেন নিহত কোহিনূর চৌধুরীর বাবা শামছুল হক চৌধুরী, আব্দুস সালাম চৌধুরী, খাইরুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ।
ধর্মপাশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম কিবরিয়া বলেন, এই মামলায় এজাহারভুক্ত দুজন আসামিকে রিমান্ড শেষে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্যান্য আসামিরা পলাতক রয়েছে। তবে আমরা বাকিদের গ্রেফতারে সর্বরকম চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com