1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ১১:৩২ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

খায়রুল হুদা চপলকে বর্ণাঢ্য সংবর্ধনা

  • আপডেট সময় রবিবার, ২৯ মে, ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার ::
ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাবান মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশ আ.লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যোগ্য মনে করেই প্রগতিশীল রাজনীতিবিদ খায়রুল হুদা চপলকে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার আহ্বায়ক করেছেন। হঠাৎ করে তিনি রাজনীতিতে আসেননি। রাজনৈতিক পরিবারেই তাঁর জন্ম। তাঁর বড়ভাই নুরুল হুদা মুকুট মরহুম জননেতা আব্দুস সামাদ আজাদের হাতেগড়া রাজনীতিবিদ। প্রগতিশীল রাজনীতিবিদ খায়রুল হুদা চপল একজন মুক্তমনের মানুষ। সময়ের দাবিতে রাজনীতিতে আজ খায়রুল হুদা চপলের আবির্ভাব ঘটেছে। তাই আজ তাঁকে যুবলীগের সংগ্রামী আহ্বায়ক করা হয়েছে। সুনামগঞ্জবাসীর দাবি-দাওয়া পূরণে তিনি সচেষ্ট থাকবেন বলে আমার বিশ্বাস।
শাবান মাহমুদ গতকাল শনিবার সকালে সুনামগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ড ও সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ড কর্তৃক সুনামগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের অডিটরিয়ামে জেলার মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষ থেকে আয়োজিত মতবিনিময় ও সংবর্ধনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের শাসনামলে মুক্তিযোদ্ধাদের সঠিক মূল্যায়ন করা হয়নি। অপশক্তি হঠিয়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের মূল্যায়ন হচ্ছে এবং হবে। ওই অপশক্তি, আগুন সন্ত্রাসীরা আবারো মাথাচাড়া দিয়ে উঠার ষড়যন্ত্র করছে। সুতরাং সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।
সংবর্ধিত ব্যক্তি বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার আহ্বায়ক খায়রুল হুদা চপল বলেন, ১৯৯৬ সালে আ.লীগ ক্ষমতায় আসে এবং মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে কাজ শুরু করে। পরবর্তী ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এসে বাংলাদেশকে জঙ্গিরাষ্ট্রে পরিণত করে। বর্তমান সরকার মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের সরকার। ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার জন্য কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরও বলেন, আমি উড়ে এসে জুড়ে বসিনি। মনে রাখবেন সুনামগঞ্জের যুবলীগে কোন সন্ত্রাসীর স্থান হবে না। সুনামগঞ্জকে নিয়ে আমি স্বপ্ন দেখি এবং সুনামগঞ্জের উন্নয়নে কাজ করে যাবো। সুনামগঞ্জের মুক্তিযোদ্ধারা আর অবহেলিত থাকবেন না।
মতবিনিময় ও সংবর্ধনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সুনামগঞ্জ জেলা ইউনিট কমান্ডার হাজী নূরুল মোমেন।
ওবায়দুর রহমান কুবাদ-এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ পরিমল কান্তি দে। প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক আতিক।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান সেন্টু, সাবেক কমান্ডার ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাহিদ উদ্দিন আহমদ, দোয়ারার ইউনিট কমান্ডার মো. সফর আলী, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা কমান্ডার মো. আতাউর রহমান, অ্যাডভোকেট কল্লোল তালুকদার চপল, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ইকবাল আল আজাদ, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌসি সিদ্দিকা প্রমুখ।
অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মুক্তিযোদ্ধা হাজী সাইদুর রহমান ও গীতাপাঠ করেন মুক্তিযোদ্ধা মলয় কান্তি দাস। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান।
অনুষ্ঠানের শুরুতে অতিথিদের ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করে হয় এবং সবশেষে অতিথিদের মধ্যে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com