1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01867-379991, 01716-288845

কমছে বেসরকারি কর্মসংস্থান, সঙ্কটে আড়াই লাখ শিক্ষিত বেকার

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০১৬

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
বাংলাদেশে বিপুল সংখ্যক উচ্চশিক্ষিত তরুণ-তরুণী বেকার হয়ে ঘরে বসে আছেন। অনেক জায়গায় পরীক্ষা দিয়েও কাক্সিক্ষত চাকরি না মেলায় অনেকের মধ্যেই হতাশা কাজ করছে।
পরিসংখ্যান ব্যুরোর সর্বশেষ রিপোর্ট বলছে, ২ লাখ ৫৫ হাজার গ্রাজুয়েট বাংলাদেশে স¤পূর্ণ বেকার। বেসরকারি কর্মসংস্থান না বাড়ায় এই বেকাররা চাকরি পাচ্ছেন না।
বৃহ¯পতিবার বিবিসি বাংলার এক প্রতিবেদনে এই পরিসংখ্যান তুলে ধরা হয়েছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশের শীর্ষস্থানীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো থেকে পাশ করেও দেখা যায় অনেকে ৩/৪ বছর ধরে বেকার।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিন বছর আগে মাস্টার্স শেষ করে বিসিএসসহ বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষা দিচ্ছেন আনোয়ার হোসেন মাহি।
তিনি বলেন, চাকরির বাজার এখন অনেক কঠিন। পরীক্ষা দিয়ে যখন দেখি আমার হলো না তখন অনেক হতাশ হয়ে পড়ি।
সমাজবিজ্ঞানে পাশ করা মো. ফারুক হোসেন বলেন, আমরা যারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি সবারই বিসিএসর প্রতি একটা অন্যরকম প্যাশন থাকে। কিন্তু এক্ষেত্রে এত বেশি দীর্ঘসূত্রিতা আমাদের অনেক সময় দিতে হচ্ছে। ৩৪তম বিসিএস শুরু থেকে গেজেট হওয়া পর্যন্ত সময় লেগেছে আড়াই বছর।’
২০১১ সালে মাস্টার্স শেষ করে হন্যে হয়ে সরকারি-বেসরকারি চাকরি খুঁজছেন দেবাশীষ বিশ্বাস। নিজের পরিস্থিতি তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘সরকারি চাকরির জন্য একশোর মতো পরীক্ষা দিয়েছি, প্রাইভেট চাকরিও দেড়শর মতো হয়ে গেছে। প্রাইভেট চাকরিতে রিটেন টেস্টেও টিকে যাচ্ছি। এরপর একটা পর্যায়ে এসে লোকে বলে, এখানে রেফারেন্স দেয়ার মতো কেউ কি আছে? পরিচিত না থাকলে আমাদের মতো সাধারণ ছাত্রদের জন্য চাকরি বাকরি পাওয়াটা ডিফিকাল্ট হয়ে গেছে।’
সরকারি কর্ম কমিশনের তথ্য অনুযায়ী ৩৭তম বিসিএস এর জন্য আবেদন পড়েছে ২ লাখ ৪৪ হাজার। বিসিএস পরীক্ষায় আবেদনকারীর সংখ্যাই সরকারি চাকরির প্রতি আকর্ষণ এবং একই সাথে বেকারত্বের চিত্র তুলে ধরে।
পিএসসি চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেন, ‘যে কোনো দেশে সরকারি এবং বেসরকারি পর্যায়ে নিয়োগের মাধ্যমেই কিন্তু বেকারত্বের সমাধান হবে। সরকারের যেসব মন্ত্রণালয় বা বিভাগ আছে তাতেই সবাই নিয়োগ পাবেন তা নয়।’
তিনি বলেন, ২৭টি ক্যাডারে ৭৯ ক্যাটাগরির লোক নিয়োগ করা হয়। এটি সময় সাপেক্ষ কাজ। তবে এক বছরের মধ্যে একটি বিসিএস এর সব প্রক্রিয়া স¤পন্ন করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা তারা কাজ করছেন।
এদিকে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বেরিয়ে শিক্ষার্থীরা অধিকাংশই বেসরকারি নানা প্রতিষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেন। সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়েরও অনেকেও সরকারি চাকরি অপেক্ষায় বসে থাকতে চান না। কিন্তু গবেষকরা দেখছেন, বেসরকারি খাতেও ইদানীং কর্মসংস্থান কমে যাচ্ছে।
পরিসংখ্যান ব্যুরোর সর্বশেষ রিপোর্ট বলছে ২ লাখ ৫৫ হাজার গ্রাজুয়েট বাংলাদেশে স¤পূর্ণ বেকার।
কর্মসংস্থান এবং বেকারত্ব নিয়ে কাজ করছেন বিআইডিএস-এর গবেষণা পরিচালক রুশিদান ইসলাম রহমান।
তিনি বলেন, ‘দেশে বেকারত্বের হার বিশেষত শিক্ষিত তরুণদের মধ্যে একটু বেড়ে যাচ্ছে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে। এটা এখনো আমি বলবো না যে উদ্বেগজনক। কিন্তু ভবিষ্যতে উদ্বেগজনক অবস্থায় চলে যেতে পারে। কাজে আমাদের দ্রুত একটু এদিকে মনোযোগ দেয়া দরকার।’
বেকারত্বের পেছনে বাংলাদেশে মানসম্মত শিক্ষার অভাব একটি বড় কারণ উল্লেখ করে রুশিদান ইসলাম বলেন, ভাল চাকরির আশা করে শিক্ষিত ছেলে মেয়েরা যে সময়টা নষ্ট করছে এটি দেশের শ্রমশক্তির বড় অপচয়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com