1. [email protected] : admin2017 :
  2. [email protected] : Sunam Kantha : Sunam Kantha
  3. [email protected] : wp-needuser : wp-needuser
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২:০১ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

স্নাতক পর্যন্ত হচ্ছে অবৈতনিক শিক্ষা

  • আপডেট সময় বুধবার, ২৫ মে, ২০১৬

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
তিন-চার বছর পর অবৈতনিক শিক্ষা স্নাতক পর্যন্ত নেওয়া হবে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী অনেক আগেই এটি করার উদ্যোগ নিলেও আমার কারণে হয়নি। বুধবার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৬-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
মুহিত বলেন, প্রধানমন্ত্রী একটা কথা সবসময় বলেন, সবাইকে শিক্ষিত করে গড়ে তোলা হলে আমাদের আর কোনো সমস্যা থাকবে না। তাই তিনি স্নাতক পর্যন্ত শিক্ষা অবৈতনিক করতে চান। কিন্তু রাজস্বের অভাবে তা করতে পারছি না। বর্তমানে অবৈতনিক শিক্ষা রয়েছে উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণি পর্যন্ত।
অর্থমন্ত্রী বলেন, এখনো ১০ শতাংশ শিশু স্কুলে যেতে পারে না। এদের বেশির ভাগ প্রতিবন্ধী ও অনগ্রসর অঞ্চলের বাসিন্দা। এ সব শিশুকে স্কুলগামী করার জন্য আগামী বাজেটে বরাদ্দের ব্যবস্থা করেছি। মাধ্যমিক শিক্ষার মান এখনো দুর্বল। ৬০ শতাংশ শিক্ষার্থী মাধ্যমিক পর্যন্ত আসতে পারে। এটি উন্নত করে ১শ শতাংশ করার বড় দায়িত্ব শিক্ষকদের।
তবে মাধ্যমিক শিক্ষা শতভাগ করার জন্য ৬৩ হাজার শ্রেণিকক্ষ বাড়াতে হবে জানিয়ে মুহিত বলেন, এর জন্য শিক্ষক নিয়োগ ও তাদের প্রশিক্ষণে বিপুল অর্থ প্রয়োজন হবে।
অর্থমন্ত্রী বলেন, দেশে এখনও বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে জরাজীর্ণ। কেউ এটি গড়ে তুললেও কোনো সংস্কার বা উন্নয়ন কাজ হয়নি। এদের জন্য বরাদ্দ বাড়ানো প্রয়োজন।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত শিক্ষার্থীদের প্রতি অর্থমন্ত্রী সবাইকে অন্তত মাধ্যমিক পর্যন্ত শিক্ষা গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে বলেন, সমাজে অনেক বঞ্চিত, নিপীড়িত অসহায় আছে, তাদের টেনে তুলতে হবে। যাতে তারাও মাধ্যমিক পর্যন্ত শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে। সবাইকে মনে রাখতে হবে আমি শিক্ষিত হবো, আশপাশের সবাইকে শিক্ষায় ব্রত করবো।
শিক্ষকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি জ্ঞান আহরণের পদ্ধতিগুলো শিক্ষার্থীদের শিখিয়ে দিতে হবে। এটি বিশেষ করে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব। কারণ জ্ঞানের সাগরে যাওয়ার বিশেষ ব্যবস্থা প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাই করে দেয়।
সভাপতির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, গতানুগতিক উচ্চশিক্ষার বাইরে গবেষণায় গুরুত্ব দিতে হবে। প্রযুক্তি জ্ঞান কাজে লাগিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে ও বেকারত্ব দূরীকরণে কারিগরি শিক্ষায় গুরুত্ব দিয়েছে সরকার। ২০২০ সালের মধ্যে এটি ২০ শতাংশে উন্নীত করতে কাজ করা হচ্ছে।
এর আগে বেলুন উড়িয়ে শিক্ষা সপ্তাহের উদ্ধোধন করে অর্থ ও শিক্ষামন্ত্রী।
২৫ মে শুরু হওয়া শিক্ষাসপ্তাহ চলবে ২৮ মে পর্যন্ত। এ উপলক্ষে ঢাকাসহ দেশব্যাপী নানা অনুষ্ঠান ও শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানের শুরুতেই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com