1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01711-368602

হেফাজতের ইউটার্ন

  • আপডেট সময় সোমবার, ২৩ মে, ২০১৬

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
নারায়ণগঞ্জে শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তের কঠোর শাস্তির দাবিতে ‘সর্বস্তরের মুসলিম জনতা’র ব্যানারে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিলেও নির্ধারিত সময় শেষে সেই কঠোর অবস্থান থেকে সরে এসেছে হেফাজতে ইসলাম। এখন তারা খানিকটা নরম সুরে সরকারের কাছে ঘটনাটির নতুন করে তদন্তের দাবি জানিয়েছে। সোমবার জেলা হেফাজতে ইসলামের আমীর মাওলানা আবদুল আউয়াল স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটির এ মনোভাব জানা গেছে।
সোমবার বিকালে স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে প্রেস বিজ্ঞপ্তিটি পাঠানো হয়।
গত ৮মে বন্দর উপজেলার পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ে এক ছাত্রকে মারধর করার সময়ে ধর্ম নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে ১৩ মে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে মারধর ও কানে ধরে ওঠবোস করানো হয়। এ ঘটনায় গত দুই সপ্তাহ ধরে তোলপাড় চলছে নারায়ণগঞ্জসহ সারাদেশে।
এ ঘটনায় গত শুক্রবার শহরের ডিআইটি জামে মসজিদের সামনে ‘সর্বস্তরের মুসলিম জনতা’র ব্যানারে বিক্ষোভ সমাবেশ করে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেওয়া হয়। ওই সমাবেশের নেতৃত্বে ছিলেন জেলার হেফাজতে ইসলাম-এর নেতারা।
সেদিন সভাপতির বক্তব্যে হেফাজত নেতা মাওলানা আবদুল আউয়াল বলেন, ৭২ ঘণ্টার মধ্যে শিক্ষকের শাস্তি, সঙ্গে তার পুনর্বহালের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারসহ শিক্ষামন্ত্রী পদত্যাগ না করলে নারায়ণগঞ্জ থেকে হরতাল, অবরোধসহ কঠোর আন্দোলন ঘোষণা করা হবে। তিনি আরও হুমকি দিয়েছিলেন এ আন্দোলন সারাদেশে ছড়িয়ে পড়বে এবং দেশ অচল করে দেওয়া হবে। তবে আল্টিমেটামের ৭২ ঘণ্টা পার হতে না হতেই সবগুলো দাবি থেকে সরে এসে কেবল ঘটনাটির পুনঃতদন্ত চায় সংগঠনটি। এমনকি ‘সর্বস্তরের মুসলিম জনতা’র ব্যানারটির সঙ্গেও হেফাজতের কোনও সংশ্লিষ্টতা নেই বলে দাবি করেছেন সংগঠনটির জেলা সমন্বয়ক মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান। তিনি গণমাধ্যমকে জানান, আলটিমেটাম কিংবা এ ধরনের বিজ্ঞপ্তি হেফাজতের কোনও বার্তা বহন কিংবা দায়িত্ব গ্রহণ করবে না। কারণ আলটিমেটামের সমাবেশটি হয়েছিল নারায়ণগঞ্জের ‘সর্বস্তরের মুসলিম জনতা’র ব্যানারে ও আবদুল আউয়াল সাহেবের প্রেস বিজ্ঞপ্তিও ওই একই ব্যানার থেকে দেওয়া।এর সঙ্গে জেলা হেফাজতের কোনও সংশ্লিষ্টতা নেই।
এদিকে সোমবার গণমাধ্যমে মাওলানা আবদুল আউয়াল স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, ‘গত শুক্রবার সরকারকে ৭২ ঘণ্টার আলটিমেটাম দেওয়া হয়। কিন্তু এ সময়ের মধ্যে কোনও ব্যবস্থা না নেওয়ায় নারায়ণগঞ্জের তৌহিদি জনতা আস্তে আস্তে ফুঁসে উঠে। এতে নারায়ণগঞ্জের পরবর্তী অবস্থা কী হবে তা বলাবাহুল্য। ইতোপূর্বেও ধর্ম অবমাননা হয়েছে। তার প্রেক্ষিতে আল্লাহ রাসুল এবং ধর্ম নিয়ে অবমাননা হয়েই যাচ্ছে। তাই নারায়ণগঞ্জের পরিস্থিতি সামাল দেওয়া এবং মুসলমানদের ক্ষত-বিক্ষত হৃদয় ঠান্ডা করতে পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের শ্যামল কান্তি ভক্তের আল্লাহ এবং মুসলমান স¤পর্কে কটূক্তির বিষয়টি নতুন করে তদন্ত সাপেক্ষে তাকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি নারায়ণগঞ্জের সর্বস্তরের জনতার পক্ষ থেকে অনুরোধ করা যাচ্ছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com