1. dailysunamkantha@gmail.com : admin2017 :
  2. editor@sunamkantha.com : Sunam Kantha : Sunam Kantha
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৭:৪২ অপরাহ্ন
ঘোষণা ::
সুনামগঞ্জ জেলার জনপ্রিয় সর্বাধিক পঠিত পত্রিকা সুনামকন্ঠে আপনাকে স্বাগতম। আমাদের পাশে থাকার জন্য সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন। আমাদের পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন - 01867-379991, 01716-288845

বোরো ফসলহানি: শুরুই হয়নি তদন্ত

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ৬ মে, ২০১৬

স্টাফ রিপোর্টার ::
গত ২৫ এপ্রিল স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের আবেদনের প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসন হাওরের বোরো ফসলহানির ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করলেও এখনো নানা সমস্যার কারণে তদন্ত কাজ শুরু করতে পারেননি সংশ্লিষ্টরা। তবে গতকাল বৃহস্পতিবার কমিটির সংশ্লিষ্টরা কাজের অগ্রগতি বিষয়ে একটি চিঠি ইস্যু করেছেন বলে জানা গেছে। তদন্ত কমিটির প্রধান সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) প্রশিক্ষণ থেকে ফিরলে এ বিষয়ে চূড়ান্ত প্রতিবেদন তৈরি করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবরে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।
জানা যায়, বাঁধ নির্মাণে ত্রুটি, অনিয়ম, জড়িতদের চিহ্নিত করে শাস্তির দাবিসহ আগামীতে ফসলরক্ষায় স্থায়ী সমাধানের বিষয়ে প্রতিবেদন তৈরি জন্য তদন্ত কমিটিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। কিন্তু প্রশাসনিক কাজের চাপের কারণে এখনো তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করতে পারিনি। তাছাড়া পানি উন্নয়ন বোর্ড তদন্ত কমিটি যাতে কাজ শুরু না করতে পারে সেজন্য নানাভাবে তদবির করছে বলে জানা গেছে। তবে তদন্ত কমিটির সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন বাঁধ নির্মাণে যারা অনিয়ম করছে তাদেরকে ছাড় দেওয়া হবেনা। যথাসময়েই কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিবে।
প্রশাসন ও স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা জানান, চলতি বোরো মওসুমে হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধের কাজে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন বাঁধের নির্মাণকাজে নিয়োজিত পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ সংশ্লিষ্টদের যথাসময়ে কাজ শুরু ও শেষ করার আহ্বান জানায়। প্রশাসন ও স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধিদের বাঁধ নির্মাণের এই বারবারের তাগাদাকে উপেক্ষা করে পানি উন্নয়ন বোর্ড কাজে বিলম্ব করে। তারা ডিসেম্বরে কাজ শুরু করার কথা থাকলেও কাজ এসে শুরু করে মার্চ মাসে। এসব কারণে বাঁধ টেকসই না হওয়ায় পাহাড়ি ঢলের প্রথম চাপে এবং বৃষ্টিতে নড়বড়ে বাঁধ ভেঙে ফসলহানির ঘটনা ঘটে। জেলার কৃষকদের একমাত্র বোরো ফসল তলিয়ে যাওয়ায় বিরাট ক্ষতির মুখে পড়েন কৃষকরা। ফসলহানির এই ঘটনায় সুধীজন, কৃষক, জনপ্রতিনিধিরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা, পিআইসি এবং ঠিকাদারদের দায়ী করেন। এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতেই গত ২৫ এপ্রিল জেলা প্রশাসন উন্নয়ন সমন্বয় সভায় প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে তদন্ত কমিটি গঠন করেন।
তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, প্রশাসনিক ব্যস্ততার কারণে আমরা কাজ শুরু করতে পারিনি। গতকাল কাজের অগ্রগতি বিষয়ে একটি চিঠি ইস্যু করা হয়েছে। আমি প্রশিক্ষণ থেকে ফিরে এ বিষয়ে কাজ করব। আমরা বাঁধ নির্মাণে ত্রুটি, অনিয়মের বিষয়টি তোলে আনার পাশাপাশি ফসলরক্ষায় স্থায়ী কি সমাধান হতে পারে এই বিষয়টি নিয়ে আসব।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

© All rights reserved © 2016-2021
Theme Developed By ThemesBazar.Com