রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:১৬ পূর্বাহ্ন

Notice :

উন্নয়নের প্রশ্নে উত্তর-দক্ষিণ নেই : পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান

স্টাফ রিপোর্টার ::
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, উন্নয়নের প্রশ্নে উত্তর দক্ষিণ নেই। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশের কাজ করতে হবে। এই সরকার উন্নয়নের মহাসড়কে আছে। সুনামগঞ্জ জেলা ও এর সুফল ভোগ করছে। শেখ হাসিনার সরকার মাদ্রাসার শিক্ষার ব্যাপারে আন্তরিক, দাওরাইকে মাস্টার্স সমমানের মর্যাদায় উন্নীত করেছেন। প্রতি গ্রামে দৃষ্টিনন্দন মসজিদ নির্মাণ করে দিচ্ছেন।
বৃহ¯পতিবার বিকেলে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার বাহাদুরপুর জামেয়া ইসলামিয়া বাইশ গ্রাম মাদ্রাসার আয়োজনে মাদ্রাসার সাবেক সভাপতি ও সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের সাবেক উপাধ্যক্ষ প্রয়াত মো. আবদুল বারীর জীবন ও কর্ম নিয়ে প্রকাশিত স্মারক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী এমএ মান্নান আরও বলেন, সুনামগঞ্জ জেলার উন্নয়নে যা যা করা দরকার আমি তাই করে যাচ্ছি এবং করবো। উন্নয়নকাজে প্রধানমন্ত্রীর একটি নির্দেশনা আছে- পিছিয়ে পড়া অঞ্চলভেদে কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করতে। আমরা সেই নির্দেশনা বাস্তবায়নে কাজ করছি।
এমএ মান্নান বলেন, আমি জেলার সকল অবহেলিত উপজেলায় বেশি বেশি প্রকল্প নিতে অফিসারদের বলে দিয়েছি। সেটা ছাতক হোক, সদর হোক, শাল্লা হোক কিংবা দক্ষিণ সুনামগঞ্জ হোক। সর্বত্র উন্নয়ন হচ্ছে, হবে।
তিনি বলেন, সমালোচকরা বলেছেন শান্তিগঞ্জ নাকি বিভাগীয় শহর হয়ে গেছে। এই বিচারের ভার আপনাদের হাতে তুলে দিলাম। এই উপজেলা যেহেতু হাইওয়ে সড়কের পাশে পাশে গেছে তাই কাজগুলো দৃশ্যমান হয় বেশি। অন্যান্য উপজেলার উন্নয়নকাজ দৃশ্যমান হয় কম, পার্থক্য এখানেই। চলমান উন্নয়নকাজ এগিয়ে নিতে আমি সকলের সহযোগিতা চাই। তিনি মাদ্রাসার প্রস্তাবিত উন্নয়নকাজ এগিয়ে নিতে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে দেশে কোনো সমস্যা থাকবে না। শেখ হাসিনাই ক্ষমতায় আছেন বলেই দেশের উন্নয়ন হচ্ছে। তিনি দারিদ্র্য বিমোচনে কাজ করছেন। শিক্ষাক্ষেত্রে আমরা যত ভালো করব দেশে দারিদ্র্য তত কমবে। বর্তমান সরকার এ জন্য শিক্ষার উন্নয়নকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে।
অনুষ্ঠানে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেন, আমরা পরাধীন ছিলাম। বঙ্গবন্ধু না হলে এই দেশ স্বাধীন হতো না। তিনিই স্বাধীনতার মহানায়ক। আমাদের মনে রাখতে হবে, এই দেশ এমনি এমনি আসেনি। স্বাধীনতার জন্য ৩০ লাখ মানুষ জীবন দিয়েছেন। দুই লাখ মা-বোন সম্ভ্রম হারিয়েছেন। তাদের প্রতি সব সময় আমাদের শ্রদ্ধা রাখতে হবে।
তিনি বলেন, এক সময় যেখানে রাস্তা ছিল না, এখন সেখানে রাস্তা হয়েছে। যেখানে বিদ্যুৎ ছিল না, সেখানে এখন আলো জ্বলছে। এসব সম্ভব হয়েছে দেশ স্বাধীন হয়েছে বলে। এখন দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। দেশের এই অগ্রযাত্রায় শেখ হাসিনাকে সহযোগিতা করতে হবে।
মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা তাফাজ্জুল হক আজিজের সভাপতিত্বে ও মাওলানা আনোয়ার আবেদীনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল হুদা মুকুট, লেখক-কলামিস্ট অ্যাড. হোসেন তওফিক চৌধুরী, অধ্যক্ষ হায়াতুল ইসলাম আখঞ্জি, অধ্যক্ষ পীর আতাউর রহমান, সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল, সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. জিয়াউল হক, সুনামগঞ্জ সদর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লক্ষণশ্রী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবদুল ওদুদ, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি দীপঙ্কর দে প্রমুখ।
পরে অতিথিদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেয়া হয় এবং মুনাজাতের মাধ্যমে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন মাওলানা আজিজুল হক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী