মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:৩৪ পূর্বাহ্ন

Notice :
«» বড় হতে হলে বিসিএস লাগবে তা নয়, মানুষ হিসেবে বড় হতে হবে : ড. মোহাম্মদ সাদিক «» উন্নয়নবিরোধী ষড়যন্ত্রকারীদের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে : এমপি রতন «» জেলা প্রশাসনের অনন্য উদ্যোগ : হাওরপাড়ে শিশুর পাঠে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ «» স্বাস্থ্যসেবায় গ্রামের মানুষ অবিচারের শিকার : পরিকল্পনামন্ত্রী «» নিজেদের খেলার মাঠ ফিরে পেল গারোরা «» সকল উপজেলা ভূমি অফিসে ই-নামজারি শুরু : ভূমি নামজারি হবে ২৮ দিনেই «» সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত «» ভারতীয় রুপিসহ যুবক গ্রেফতার «» শহরে বখাটের ছুরিকাঘাতে দুই ভাই রক্তাক্ত «» আলহেরা মাদ্রাসায় শ্রেণিকক্ষ নির্মাণকাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

মধ্যনগর শীঘ্রই উপজেলায় উন্নীত হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ::
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেছেন, এই সরকার কোনো সাধারণ সরকার নয়, ভিন্ন ধরনের সরকার। সরকারপ্রধান একজন ভিন্ন ধরনের মানুষ, যিনি পিছিয়ে পড়া মানুষের জন্য কাজ করতে ভালবাসেন। তাঁর হৃদয়ের মণিকোঠায় সাধারণ মানুষের স্থান। এটা বুঝি বলেই আমি তাঁর সাথে আছি। তাঁর সাথে থাকার কারণে আমিও সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করতে পারি।
বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির তৃতীয় বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার এদেশের গণমানুষের উন্নয়নের সরকার। আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করেন। ফু দিয়ে চুলায় আগুন ধরিয়ে ভাত খাবার গল্প এখনও বলেন। সংগ্রামী জীবনের অধিকারী প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এদেশের মানুষকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়ন করে যাচ্ছেন।
মন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, সারাদেশের সড়ক যোগাযোগ নেটওয়ার্কের আওতায় আসবে সুনামগঞ্জ জেলা। আমরা সুনামগঞ্জের সাথে নেত্রকোণা হয়ে সড়ক পথে যাওয়ার জন্য উড়াল সড়ক নির্মাণ করবো। শিগগিরই দিরাই-শাল্লা-আজমিরিগঞ্জ মহাসড়কের কাজ শুরু হবে। কুশিয়ারা নদীর উপর নির্মাণাধীন সেতুর কাজও শেষ হবে। মধ্যনগরকে উপজেলায় উন্নীতকরণের কাজ এগিয়ে চলছে। শীঘ্রই এটিও বাস্তবায়ন হবে। আমি মধ্যনগরবাসীকে আগাম অভিনন্দন দিয়ে রাখছি।
সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এমরানুল হক চৌধুরী, কার্যনির্বাহী সদস্য হিমাদ্রী শেখর ভদ্র ও দপ্তর সম্পাদক মো. আমিনুল ইসলামের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য রাখেন ছাতক দোয়ারার এমপি মুহিবুর রহমান মানিক, দিরাই শাল্লার এমপি ড. জয়া সেনগুপ্তা, সুনামগঞ্জ ১ আসনের এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, সুনামগঞ্জ সদর-বিশ্বম্ভরপুর আসনের এমপি অ্যাড. পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, সুনামগঞ্জ-সিলেট সংরক্ষিত আসনের এমপি অ্যাড. শামীমা শাহরিয়ার, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মতিউর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূরুল হুদা মুকুট, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, পৌর মেয়র নাদের বখত, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী হাওরের মানুষের প্রতি আন্তরিক। আমি প্রধানমন্ত্রীর টেবিলে হাওরের অসহায় মানুষের কথা তুলে ধরি। আমি নিজ চোখে দেখেছি চৈত্র মাসের নিদানে কিভাবে মানুষ অনাহারে থাকে এবং এক কলস পানির জন্য মাইলের পর মাইল হেঁটেছে। অনেকে নদীর পানি পান করে কলেরায় আক্রান্ত হত। আমি এসব থেকে উত্তরণের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।
মন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, কভিডের কারণে আমাদের প্রকল্পগুলো কিছুটা গতিহীন হলেও আমাদের উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে টাকা কোন সমস্যা নয়।
মন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাওরবাসীর প্রতি অত্যন্ত আন্তরিক। তার কাছে হাওর এলাকার কোনো উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে গেলে তিনি তা সাথে সাথে অনুমোদন দিয়ে দেন। হাওরবাসীর প্রতি তাঁর সীমাহীন আবেগ রয়েছে।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, দুই বছর আগে একনেক সভায় হাওর এলাকা সুনামগঞ্জের অবস্থান চিন্তা করে প্রধানমন্ত্রী উড়াল সড়ক করার পরিকল্পনা দিয়েছিলেন। এটি তার চিন্তা থেকেই এসেছে। আমরা হাওরে শেখ হাসিনা উড়াল সড়ক বাস্তবায়নে এগিয়ে যাচ্ছি। আশা করি শীঘ্রই এটি অনুমোদন হবে।
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেন, প্রকল্পের অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমানোর উদ্যোগ নিয়েছি আমরা। আমাদের পরিকল্পনা কমিশনের সংশ্লিষ্ট শাখাও মাঠপর্যায়ে ঘুরে প্রকৃত ব্যয়ের তথ্য পর্যালোচনা করবে। দেশের জনগণের টাকা যাতে কোন অপচয় না হয় সেজন্য আমরা কাজ করবো।
মন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, ছাতক থেকে সুনামগঞ্জে রেল আসবে। ইতোমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে। আমি সংশ্লিষ্টদের সাথে এ বিষয়ে কথা বলেছি। আমরা সুনামগঞ্জকে সারাদেশের সঙ্গে যোগাযোগের নেটওয়ার্কের আওতায় আনবো।
সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন যুগান্তর পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি মাহবুবুর রহমান পীর। সভার শুরুতে সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রয়াত সদস্য আবেদ মাহমুদ চৌধুরী স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। আলোচনা পর্ব শেষে কেক কেটে সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করেন অতিথিবৃন্দ।
সভায় বিভিন্ন রাজনৈতিক-সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, সুশীল সমাজ ও বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী