সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:০৭ পূর্বাহ্ন

Notice :

শিক্ষার্থীদের আলোকিত মানুষ হতে হবে : এমপি মিসবাহ

স্টাফ রিপোর্টার ::
সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও বিরোধী দলীয় হুইপ অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ বলেছেন, সুনামগঞ্জের সুরমার উত্তর পাড়ের ২৪টি গ্রামে একই সাথে বিদ্যুতের আলো জ্বলে উঠবে। শীঘ্রই এই গ্রামগুলোতে বিদ্যুৎ সংযোগের উদ্বোধন করা হবে। সুরমার উত্তরপাড়ের মানুষের যাতায়াতের কথা বিবেচনা করে সুরমা নদীর হালুয়ারঘাটে এবং চলতি নদীতে ব্রিজ নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সুরমার উত্তরপাড়ের আমূল পরিবর্তনের লক্ষ্যে কাজ করা হচ্ছে। রঙ্গারচর-হরিনাপাটী উচ্চ বিদ্যালয়কে স্কুল এন্ড কলেজে উন্নীত করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে বিদ্যালয়ের ৪তলা ভবন নির্মাণের টেন্ডার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আরো ১০ লক্ষ টাকা দিয়ে বিদ্যালয়ের সংস্কারকাজ সম্পন্ন করা হবে।
তিনি শনিবার সকালে রঙ্গারচর-হরিনাপাটী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ডা. আজিজুর রহমান স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষার বৃত্তি ও সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
এমপি মিসবাহ আরো বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার চাপের মধ্যে রাখা যাবে না। আনন্দের মাধ্যমে তাদের পাঠদান করতে হবে। শিক্ষার্থীদের আলোকিত মানুষ হওয়ার স্বপ্ন দেখতে হবে এবং দেখাতে হবে। শিশুদের প্রতি আমাদের অভিভাবকদের সদয় হতে হবে। জিপিএ-৫ এর পেছনে না ঘুরে শিশুদেরকে মানবিক এবং নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে।
এমপি অ্যাড. পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ বলেন, ডা. আজিজুর রহমান স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রফেসর ডা.এ.কে.এম হাফিজ সুনামগঞ্জের কৃতী সন্তান। দীর্ঘদিন যাবত তিনি এলাকার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। আমি তাঁর দীর্ঘায়ু কামনা করছি।
বৃত্তি পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা এমএ রউফ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ডা. আজিজুর রহমান স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রফেসর ডা. এ.কে.এম. হাফিজ, জেলা শিক্ষা অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম ও সিলকো ফার্মাসিউটিক্যাল লিমিটেড সিলেটের জেনারেল ম্যানেজার মো. নূরুল ইসলাম।
বৃত্তি পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব এবং সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. ফারুক আহমদ-এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল গফুর খান।
আরো বক্তব্য রাখেন বৃত্তি পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি মো. আব্দুর রউফ, কোষাধ্যক্ষ মো. ফারুক আহমদ, সদস্য মো. রইছ আলী, শিক্ষার্থী অভিভাবক অ্যাডভোকেট আজিজুর রউফ বিপ্লব, শিক্ষার্থী উম্মে হানী জান্নাত প্রমুখ।
এর আগে অতিথিদের মধ্যে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন স্মৃতি বৃত্তির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রফেসর ডা. এ.কে.এম. হাফিজ। পরে ১৩৯ জন বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্যে সনদ ও পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।
এসময় বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী ও তাদের শিক্ষক এবং অভিভাবকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী