শুক্রবার, ০৫ মার্চ ২০২১, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন

Notice :

দুর্নীতি করে কেউ পার পাবে না : পরিকল্পনামন্ত্রী

মো.শাহজাহান মিয়া ও সামছুল ইসলাম সর্দার ::
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের প্রতিটি অঞ্চলে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। এর মধ্যে শিক্ষাক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি কাজ হচ্ছে। এরই ধারাহিকতায় এবার বছরের শুরুতেই শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বইসহ নগদ টাকা দেয়া হবে। এটা সরকারের বড় সাফল্য। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্মাণে সরকার যুগান্তকারী উদ্যোগ পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করছে। শুধু শিক্ষকদের নিয়মিত পাঠদান ও শিক্ষার্থীদের মনোযোগ সহকারে লেখাপড়া করে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশের কল্যাণে অবদান রাখতে হবে।
শুক্রবার সকালে জগন্নাথপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত শিক্ষার মানোন্নয়ন বিষয়ক আলোচনা সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি আরো বলেন, সিলেট বিভাগের উন্নয়নের জন্য আমার হাতে পাঁচশত কোটি টাকা আছে। এসব টাকার একটি অংশ জগন্নাথপুর ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ব্যয় করা হয়েছে এবং বাকি টাকা বিভাগের প্রতিটি উপজেলায় পর্যায়ক্রমে ব্যয় করা হবে।
এসময় এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে মন্ত্রী ইনাতগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ির জন্য একটি গাড়ি দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ইনাতগঞ্জকে থানায় বাস্তবায়নের জন্য সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। এর আগে তিনি বিদ্যালয়ে প্রতিষ্ঠিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কর্নারের উদ্বোধন করেন।
মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে শুদ্ধি অভিযান চলছে। সারাদেশের মানুষ জননেত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আছেন। যারা দুর্নীতি করে হাজার হাজার কোটি টাকা বানিয়েছে, সেই সব ডাকাতদের ধরা হচ্ছে। দুর্নীতি করে কেউ পার পাবে না। কুশিয়ারা নদীর ভাঙন রোধে ইতিমধ্যে একটি মেগা প্রজেক্ট হাতে নেয়া হয়েছে। আশাকরি শীঘ্রই কাজ শুরু হবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন এমপি দেওয়ান শাহনেওয়াজ মিলাদ গাজী, এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, এমপি ড. জয়া সেনগুপ্তা, এমপি মুহিবুর রহমান মানিক, এমপি অ্যাড. শামীমা শাহরিয়ার।
আরো বক্তব্য রাখেন নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকমল হোসেন, নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমদাদুর রহমান মুকুল, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী, জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু।
ইনাতগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও জগন্নাথপুর উপজেলার পাইলগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান মখলুছ মিয়ার সভাপতিত্বে ও শিক্ষক জন্মজয় রায়ের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বদরুল আলম।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ সুপার পারভেজ আলম, নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসান, জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুম, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট গীতগোবিন্দ দাশ, নবীগঞ্জ থানার ওসি আজিজুর রহমান, জগন্নাথপুর উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আপ্তাব উদ্দিন, পাইলগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলী আফজল, নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক কাজী হেলাল, অ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান কাজল, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক আমিনুর রাহমান স্বপন, ইনাতগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল খালিক, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, পাইলগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি হাজী সুন্দর উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আবদুল তাহিদ, জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি সালেহ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন লালন, নবীগঞ্জ পৌর যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক হাবিবুর রাহমান হাবিব, জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আবদুল বারিক, ইনাতগঞ্জ যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ ফরিদ, সভাপতি আশাহীদ আলী আশা, সাধারণ সম্পাদক শেখ জামাল আহমদ, পাইলগাঁও ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক আখলাক মিয়া, যুগ্ম-আহ্বায়ক কয়ছর রশিদ, নবীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়ছল তালুকদার, সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান রাজু, ইনাতগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহ্বায়ক রুবেল আহমদ প্রমুখ।
অপরদিকে, শুক্রবার বিকেলে দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের বিবিয়ানা মডেল ডিগ্রী কলেজ পরিবারের পক্ষ থেকে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশ বদলে যাচ্ছে। দেশের সব জায়গায় উন্নয়ন কাজ হচ্ছে। হাওরাঞ্চলের প্রচুর মানুষ প্রবাসে রয়েছেন। প্রবাসীদের কষ্টার্জিত টাকা দেশকে সমৃদ্ধ করছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসীদের অবদান রয়েছে। প্রবাসীদের প্রতি দেশের মানুষ কৃতজ্ঞ। আমরা হাওরাঞ্চলের নারী-পুরুষকে প্রশিক্ষণ দিতে ইতিমধ্যে বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করেছি।
শিক্ষার প্রতি গুরুত্ব দিয়ে মন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার উদ্যোগ গ্রাম হবে শহর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই উদ্যোগ সফল করতে হাওরাঞ্চলকে শিক্ষায় এগিয়ে নিতে হবে। সাবেক মন্ত্রী ও জাতীয় নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত এবং বিবিয়ানা কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ছুফি মিয়ার স্মৃতিচারণ করে এমএ মান্নান বলেণ, দিরাই উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে অবস্থিত বিবিয়ানা মডেল কলেজ এ অঞ্চলে যেভাবে শিক্ষার বিস্তার ঘটাচ্ছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. শফি উল্লাহ-এর সভাপতিত্বে ও প্রভাষক মাসুফা তাসনীম মুর্শেদা ও মো. মিলন মিয়ার যৌথ সঞ্চালনায় প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন ড. জয়া সেনগুপ্তা এমপি।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মুহিবুর রহমান মানিক এমপি, ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি, গাজী শাহ নেওয়াজ এমপি, মোছা. শামীমা আক্তার খানম এমপি।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলেজের অধ্যক্ষ নৃপেন্দ্র দাস তালুকদার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দিরাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম চৌধুরী, শাল্লা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আল আমিন চৌধুরী, দিরাই পৌরসভার মেয়র মোশাররফ মিয়া, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান তালুকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সোহেল আহমদ, সাধারণ স¤পাদক প্রদীপ রায়, যুগ্ম সাধারণ স¤পাদক লুৎফুর রহমান এওর মিয়া, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রঞ্জন কুমার রায়, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোহন চৌধুরী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট রিপা সিনহা, যুবলীগ নেতা জিল্লুর রহমান প্রমুখ। পরে কলেজের বঙ্গবন্ধু কর্নার উদ্বোধন করেন অতিথিরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী