মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ০৭:১৩ অপরাহ্ন

Notice :

পেঁয়াজের দাম লাগামহীন

শহীদনূর আহমেদ ::
সুনামগঞ্জে পেঁয়াজের বাজারের অবস্থা অনেকটা শেয়ারবাজারের পাগলা ঘোড়ার মতো। দাম কিছুটা কমতে শুরু করলে ক্রেতারা আরেকটু কমার অপেক্ষায় থাকে। কিন্তু কমার দিকে থাকা মূল্য আবার হুট করে এক লাফে অনেকটাই বেড়ে যায়। বর্তমানে জেলার পাইকারি ও খুচরা বাজারে মাত্রাতিরিক্ত মূল্যে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৩০ থেকে ১৪০ টাকায়। উপজেলা কিংবা গ্রামের বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৫০ থেকে ১৫৫ টাকায়। কিছুতেই পেঁয়াজের লাগাম টানা যাচ্ছে না। এদিকে পেঁয়াজের লাগামহীন দামের কারণে ক্রেতারা বিড়ম্বনায় পড়েছেন। অসাধু ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট আর বাজার মনিটরিং কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় ব্যবসায়ীরা ইচ্ছেমতো দাম রাখছেন এমন অভিযোগ ভোক্তাদের। এদিকে পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলেও পূর্বের চেয়ে তা কেজি প্রতি ২০ টাকা কমেছে বলে দাবি করেছেন জেলা মার্কেটিং অফিসার আব্দুল খালেক।
ভুক্তভোগীরা জানান, অসাধু ব্যবসায়ীরা শুধু পেঁয়াজই নয় বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম তাদের ইচ্ছেমতো বাড়িয়ে থাকে। দ্রুত পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে আনতে বাজার মনিটরিং তৎপরতা বাড়াতে হবে।
গত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার জেলা শহরের খুচরা ও পাইকারি বাজার ঘুরে দেখা যায় পেঁয়াজের লাগামহীন দামের চিত্র। শহরের আলফাত স্কয়ার এলাকার রহমান বেকারি এন্ড কনফেকশনারিতে ছোট পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ১৩০ টাকায়। হৃদি ভেরাইটিজ স্টোরের মূল তালিকায় পেঁয়াজের মূল্য লেখা না থাকলেও কেজি প্রতি ১৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। পুরাতন জেলরোড এলাকার বিজয় স্টোরে এক কেজি পেঁয়াজের মূল্য ১৪০ টাকা রাখতে দেখা গেছে। স্টেশন রোডের মেসার্স গৌরাঙ্গ স্টোরে মূল্য তালিকায় পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ১৩০ টাকা লেখা রয়েছে। শহরের মধ্যবাজার এলাকার শাহীন স্টোরে বড় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকায় আর ছোট পেঁয়াজ ১৩৫ টাকায়। একই দামে লাভলু স্টোর, ইন্তাজ এন্ড ব্রাদার্সসহ বিভিন্ন খুচরা দোকানে একই দামে বিক্রি হতে দেখা যায় পেঁয়াজ।
মেসার্স গৌরাঙ্গ স্টোরের ব্যবস্থাপক জানান, ঢাকায় পেঁয়াজের মূল্য বেশি। তাই তাদেরও উচ্চ মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করতে হচ্ছে।
এদিকে জেল রোড এলাকায় পেঁয়াজের পাইকারি দোকানে খোঁজ নিয়ে জানাযায়, পাইকারি দরে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১১৫ থেকে ১২০ টাকায়। পাইকারি ব্যবসায়ীরা জানান, সুনামগঞ্জে পেঁয়াজের কোনো স্টোর নেই। প্রতিদিন ঢাকা থেকে যে পেঁয়াজ আসে তাই বিক্রি হয়। ঢাকায় পেঁয়াজের দাম বেশি। ফলে তাদের বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করতে হচ্ছে।
পেঁয়াজের দাম বেশি হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন সাধারণ ক্রেতারা। এভাবে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে ভোগান্তি বাড়তে থাকবে বলে শঙ্কা সাধারণ ক্রেতাদের।
পৌর শহরের বাগানবাড়ি এলাকার বাসিন্দা দিলদার হোসেন বলেন, গত এক মাস ধরে বাজার থেকে কেজি প্রতি ১০০ টাকার উপরে কিনতে হচ্ছে। শুক্রবারও ১৩০ টাকায় এক কেজি পেঁয়াজ কিনেছি।
জেলা মার্কেটিং অফিসার মো. আব্দুল খালেক বলেন, আজকে (শুক্রবার) বাজারে যাইনি। তবে শুনেছি পেঁয়াজের পূর্বের মূল্যের চেয়ে কেজি প্রতি ২০ টাকা কমেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী