রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ০২:২৭ পূর্বাহ্ন

Notice :

প্রয়োজনে সুনামগঞ্জেও চলবে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান : পরিকল্পনামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ::
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেছেন, সারাদেশে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান চলছে। সেই অভিযান যেকোনো জেলায়ও চালানো হতে পারে। সুনামগঞ্জও এর বাইরে নয়। প্রয়োজন পড়লে সুনামগঞ্জেও এই অভিযান চালানো হবে।
তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পরিষ্কার বলেছেন, দুর্নীতিবাজদের পরিচয়ের কারণে তাদের প্রতি কোনো দরদ দেখানো হবে না, যেখানে যাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া যাবে তাদেরকেই আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। শুধু ঢাকায় নয়, সারাদেশের সাথে সুনামগঞ্জেও দুর্নীতিবাজদেরকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।
বুধবার দুপুরে জগন্নাথপুর উপজেলায় নিরাপদ পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ৪০০ হতদরিদ্র পরিবারের মধ্যে গভীর নলকূপ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এই মন্তব্য করেন।
জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুমের সভাপতিত্বে ও উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আব্দুর রব সরকারের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিদ্দিক আহমদ, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আকমল হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়াতুন নবী, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব প্রমুখ।
অপরদিকে বুধবার জগন্নাথপুরে তরুণ-তরুণীদের আইসিটি ও আউটসোর্সিং বিষয়ক প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে উপজেলা পরিষদ এর আয়োজন করে।
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের পাশাপাশি দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন। যারা সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণœ করছে, তাদের রেহাই নেই।
তিনি বলেন, প্রযুক্তির মাধ্যমে সরকারি সেবাগুলো জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি দুর্নীতিকে বিদায় জানাতে সরকার বদ্ধপরিকর। তিনি সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রকল্প গ্রহণে সতর্ক এবং শুধু শহরকেন্দ্রিক ভাবনা না রাখতে আহ্বান জানান। তিনি বলেন, সরকার শহরের সুবিধাগুলো গ্রামের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে নিরলসভাবে কাজ করছে। ফলে গ্রাম এখন শহরে পরিণত হচ্ছে। সরকারের এসব উন্নয়ন দেখে একটি মহল ঈর্ষান্বিত হয়ে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার চালাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান মন্ত্রী।
জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারজানা বেগম, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আকমল হোসেন, সাধারণ স¤পাদক রেজাউল করিম প্রমুখ।
এদিকে, বুধবার বিকেলে জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া বাজারে কলকলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক দিপক কান্তি দে দিপালের শোকসভায় প্রধান অতিথি বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান।
এ সময় তিনি বলেন, প্রয়াত দিপক কান্তি দে দিপাল ছিলেন দলের একজন আদর্শবান কর্মী। কলকলিয়া ইউনিয়নের উন্নয়নে তাঁর অনেক অবদান রয়েছে। তাঁর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে কলকলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।
কলকলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফখরুল হোসেনের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম-সম্পাদক মাস্টার মিজানুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও প্রবীণ রাজনীতিবিদ সিদ্দিক আহমদ, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শিক্ষাবিদ সিরাজুল ইসলাম, জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আকমল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু,উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব, জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুম।
বক্তব্য রাখেন জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র আবদুল মনাফ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবদুল মালিক, সাংবাদিক পংকজ দে, অধ্যক্ষ এমএ মতিন, আবদুল কদ্দুছ, জেলা যুবলীগ নেতা আলাল হোসেন রানা, জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামাল উদ্দিন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান, প্রয়াত দিপাল কান্তি দে-এর পুত্র জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি দিপঙ্কর কান্তি দে, সিলেট মহানগর ছাত্রলীগ নেতা রাসেল আহমদ, জগন্নাথপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাফরোজ ইসলাম মুন্না, যুবলীগ নেতা সিপন আহমদ, শাহ আলম, কামাল হোসেন লিলু, আনোয়ার হোসেন মিঠু, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি লায়েক আহমদ, সাধারণ সম্পাদক রাজ শেখর বৈদ্য প্রমুখ।
সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জসিম উদ্দিন ও গীতাপাঠ করেন জিতেন্দ্র নাথ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী