রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ০৪:৩১ পূর্বাহ্ন

Notice :

কউকা কিতা দরকার, আমি কইরা দিমু : পরিকল্পনামন্ত্রী

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি ::
পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেছেন, বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। দেশের সব জায়গায় উন্নয়নকাজ হচ্ছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আরো এগিয়ে যাবে। আমরা শুধু জনগণের দোয়া ও ভোট চাই। তিনি বলেন, প্রবাসী ভাইদের প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। কারণ প্রবাসীদের কষ্টার্জিত টাকা দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধিতে অবদান রাখছে।
শুক্রবার জগন্নাথপুর উপজেলা উন্নয়ন সংস্থা যুক্তরাজ্যে’র উদ্যোগে নির্মিত জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে “মরচুয়ারী” (লাশ হিমাগার) উদ্বোধন শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
এমএ মান্নান আরো বলেন, আমাদের দেশে ভাল চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান এবং ভাল সেবা রয়েছে। চিকিৎসার জন্য আমাদের মানসিকতা পরিবর্তন করতে হবে। সরকার দেশের চিকিৎসা খাতকে আরও উন্নত করতে চায়।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আমাদের এখানে অবকাঠামো ও দক্ষ জনবলের কিছুটা অভাব রয়েছে। এখন মানুষের উন্নত সেবা নিশ্চিত করার জন্য আমাদের প্রতিটি ক্ষেত্রে কাজ করতে হবে।
পরিকল্পনামন্ত্রী উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা কউকা কিতা দরকার, আমি কইরা দিমু। আমি কামলা বেটা খালি কাম করতাম চাই। টেকার কোন অভাব নাই।
সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও প্রবীণ রাজনীতিবিদ সিদ্দিক আহমদ।
জগন্নাথপুর উপজেলা উন্নয়ন সংস্থা যুক্তরাজ্যে’র চেয়ারম্যান তাহের কামালীর সভাপতিত্বে এবং জেনারেল সেক্রেটারি আবদুল ওয়াহিদ ও সাংবাদিক আবদুল হাই-এর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন সংস্থার পক্ষে যুক্তরাজ্য প্রবাসী তছির আলী, মিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক শেরীন, মাওলানা মঈনুল ইসলাম পারভেজ প্রমুখ। অনুষ্ঠান শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন নজরুল ইসলাম টুনু।
সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রীর একান্ত সচিব মোহাম্মদ হুমায়ূন কবির, জেলা সিভিল সার্জন ডা. আশুতোষ দাস, উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বিজন কুমার দেব, জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহফুজুল আলম মাসুম, জগন্নাথপুর থানার ওসি ইখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু, সহ-সভাপতি আবদুল কাইয়ূম, আনহার মিয়া মেম্বার, পাটলি ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল হক, জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মধুসূদন ধর।
এ সময় উন্নয়ন সংস্থার ট্রেজারার রেজাউর রহমান, যুক্তরাজ্য প্রবাসী আশিকুল হক, সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য মাহতাবুল হাসান সমুজ, জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র শফিকুল হক, জগন্নাথপুর সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জাহিদুল ইসলাম, উপজেলার কলকলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল হাসিম, চিলাউড়া-হলদিপুর ইউপি চেয়ারম্যান আরশ মিয়া, পৌর কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন মুন্না, দিলোয়ার হোসেন, প্রবাসী আবদুর রব, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা শাহিদুল ইসলাম বকুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা সম্পাদক কুতুব উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক জয়দ্বীপ সূত্রধর বীরেন্দ্র, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী ইকবাল হোসেন ভূইয়া, সাংস্কৃতিক সম্পাদক শুকুর আলী ভূইয়া, সহ-দপ্তর সম্পাদক মামুন আহমদ, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামাল উদ্দিন, যুবলীগ নেতা সিপন আহমদ, সিনিয়র সাংবাদিক শংকর রায়, জগন্নাথপুর উপজেলা প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান মিয়া, রাণীগঞ্জ কলেজের প্রভাষক মিছলুর রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাফরোজ ইসলাম মুন্না, সাধারণ সম্পাদক শাহ রুহেল আহমদ, হাসপাতাল পয়েন্ট বাজার সেক্রেটারি সাজিদুর রহমান, সহ-সেক্রেটারি আবদুল হান্নান, জগন্নাথপুর বাজারের সাবেক সহ-সেক্রেটারি জুনেদ আহমদ ভূইয়া, ব্যবসায়ী জামিল আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড নেতা আজিজ মিয়া, জগন্নাথপুর সংবাদপত্র বিক্রেতা সমিতির সভাপতি নিকেশ বৈদ্য প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী