বুধবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২০, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন

Notice :
«» নিরুত্তাপ রাজনীতিতে উত্তাপ ছড়াচ্ছে কোন্দল «» রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের পরিচালক হলেন চপল «» সাংহাই হাওর : গুরুত্বপূর্ণ ক্লোজারে গ্রহণ করা হয়নি প্রকল্প «» আদর্শ জাতি গঠনে নৈতিক শিক্ষার বিকল্প নেই : মেয়র নাদের বখত «» সুনামগঞ্জে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী «» শেখ হাসিনায় আস্থা আছে ৮৬ শতাংশ নাগরিকের «» ১১ উপজেলায় নির্মাণ হচ্ছে কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান «» হাওরাঞ্চলে প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহে শিশুদের ঝরে পড়ার বাস্তবতা ও গৃহীত উদ্যোগ : ইয়াসমিন নাহার রুমা «» বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা কেউ থামাতে পারবে না : পরিকল্পনামন্ত্রী «» হলহলিয়া দুর্গে মিলেছে প্রাচীন সভ্যতার সুসজ্জিত কক্ষের ধ্বংসাবশেষ

প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ পেছাল

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষার ফলাফল বৃহস্পতিবার প্রকাশ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ফল প্রকাশের কিছু আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন না হওয়ায় আগামী সপ্তাহে তা প্রকাশের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
জানতে চাইলে ডিপিইর মহাপরিচালক ড. এ এফ এম মঞ্জুর কাদির গণমাধ্যমকে বলেন, সহকারি শিক্ষক নিয়োগের এমসিকিউ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের কাজ শেষ হয়েছে। আজ (বৃহস্পতিবার) নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের কথা থাকলেও হঠাৎ করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ঢাকার বাইরে যাওয়ায় তা পিছিয়ে গেছে। কিছু আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন না হওয়ায় তা আগামী সপ্তাহে প্রকাশ করা হবে।
আগামী সপ্তাহের কোন দিন তা প্রকাশ করা হবে- জানতে চাইলে তিনি বলেন, আগামী সপ্তাহের প্রথম দিকে এ ফলাফল প্রকাশ করা হতে পারে।
তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিব জানান, ফলাফল তৈরির কাজ শেষ, এখন তা প্রতিমন্ত্রী ও সচিবের স্বাক্ষরের অপেক্ষায় ফাইলবন্দি হয়ে আছে। আগামী রোববার প্রতিমন্ত্রীর স্বাক্ষর নেয়া সম্ভব হবে। সেদিন অথবা সোমবার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের ফলাফল প্রকাশ করা হবে।
প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রথম ধাপ গত ২৪ মে, দ্বিতীয় ধাপ ৩১ মে, তৃতীয় ধাপ ২১ জুন এবং চতুর্থ ধাপের পরীক্ষা ২৮ জুন অনুষ্ঠিত হয়।
গত বছরের ৩০ জুলাই ‘সহকারি শিক্ষক’ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। গত ১ থেকে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন কার্যক্রম শেষ হয়। ১২ হাজার আসনের বিপরীতে সারাদেশ থেকে ২৪ লাখ ৫ জন প্রার্থী আবেদন করেন। সে হিসাবে প্রতি আসনে প্রায় ২০০ প্রার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। – জাগো নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী