বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২০, ০৭:১১ অপরাহ্ন

Notice :

মিয়ানমারে ফিরতে একজন রোহিঙ্গাও রাজি হয়নি

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
বাংলাদেশের পক্ষ থেকে সবধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ সম্পন্ন হওয়ার পরও রোহিঙ্গাদের অনাগ্রহের কারণে তাদের মিয়ানমারে পাঠানো যাচ্ছে না। বৃহস্পতিবার টেকনাফে থাকা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো শুরু হওয়ার কথা ছিল। সে অনুযায়ী প্রস্তুতিও নেয়া হয়। তবে সাক্ষাৎকারে রোহিঙ্গারা বলেছেন- তারা দেশে ফেরত যাবেন না।
বৃহ¯পতিবার দুপুর পর্যন্ত ২৯০ জন রোহিঙ্গার সাক্ষাৎকার নেয়া হয়েছে জানিয়ে টেকনাফের শালবাগান ক্যা¤েপ এক প্রেস ব্রিফিংয়ে কক্সবাজারের ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম বলেন, ২২ আগস্ট রোহিঙ্গাদের তাদের দেশে ফেরত পাঠানো শুরু হওয়ার কথা ছিল। ৩ হাজার ৪৫০ জনের সাক্ষাৎকার নেয়া হবে। এর মধ্যে ২৯০ জনের সাক্ষাৎকার নেয়া হয়েছে। তারা প্রত্যেকেই বলেছেন, মিয়ানমারে ফেরত যাবেন না।
তিনি বলেন, সাক্ষাৎকার চলমান থাকবে। এখন পর্যন্ত একজনও রাজি হয়নি। ফলে কাউকে নেয়া যাচ্ছে না।
রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া ব্যর্থ কি-না জানতে চাইলে আবুল কালাম বলেন, এটা ব্যর্থ বলতে পারেন না। সব পরিবারের সাক্ষাৎকার চলবে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। আমাদের বাস-ট্রাকও রেডি থাকবে। কেউ যেতে চাইলে পাঠানো হবে।
মিয়ানমারে ফিরতে রোহিঙ্গাদের শর্তের ব্যাপারে তিনি বলেন, এগুলো মিয়ানমার এবং রোহিঙ্গাদের ব্যাপার। আমরা শুধু সীমান্ত পার করে দেব।
গত বছরের ১৫ নভেম্বর রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের প্রথম সময়সীমা নির্ধারিত হয়েছিল। রোহিঙ্গারা রাজি না হওয়ায় তখন কাউকে রাখাইনে পাঠানো সম্ভব হয়নি। এবারও একই ঘটনা ঘটলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী