রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:৩১ পূর্বাহ্ন

Notice :
«» শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত : বিনম্র শ্রদ্ধায় জাতির সূর্যসন্তানদের স্মরণ «» জেলা প্রশাসনের অনন্য উদ্যোগ : দ্বারে দ্বারে গিয়ে বিজয় শুভেচ্ছা জানানো হল মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ স্বজনদের «» শাল্লায় যুদ্ধাপরাধী সাকা’র নামফলক : মুক্তিযোদ্ধাদের ক্ষোভ «» সড়ক সংস্কারের দাবিতে ভাটিপাড়ায় মানববন্ধন «» খালেদা জিয়ার জামিন খারিজের প্রতিবাদে বিক্ষোভ «» জগন্নাথপুরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০ «» মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে ছড়িয়ে দিতে হবে : এমপি রতন «» শর্ত সাপেক্ষে খুললো তামাবিল ইমিগ্রেশন «» সংগ্রাম সম্পাদক তিন দিনের রিমান্ডে «» মোশতাক, জিয়ার মতো মীরজাফররা আর যেন ক্ষমতায় না আসে : প্রধানমন্ত্রী

গলাকাটা সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীনকে গণপিটুনি!

তাহিরপুর প্রতিনিধি ::
‘পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজে শিশুদের মাথা লাগবে’ এমন গুজবে দুই সপ্তাহ ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলেধরা ভেবে এলাকায় অপরিচিত কাউকে দেখলেই গণপিটুনি দেয়া হচ্ছে। শনিবার এরকম ঘটনা ঘটে তাহিরপুর উপজেলার বড়দল উত্তর ইউনিয়নের মানিগাঁও গ্রামে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ওইদিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে মানিগাঁও গ্রামের নদী তীর থেকে অজ্ঞাতনামা মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে স্থানীয় কিছু যুবক আটক করে মানিগাঁও চকবাজার এলাকায় নিয়ে যায়। এ সময় তারা ‘গলাকাটা গলাকাটা’ বলে চিৎকার শুরু করে। তাদের চিৎকার শুনে মুহূর্তের মধ্যে হাজারো লোক জমায়েত হয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে এলোপাতাড়ি কিল, ঘুষি ও লাথি মারতে থাকে। এক পর্যায়ে ওই ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এসময় কিছু লোক তাকে একটি দোকানঘরে তালাবদ্ধ করে রেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে বাদাঘাট পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই আমির উদ্দিন, এএসআই মনিরুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে জনতার রোষানলে পড়েন। আবারো স্থানীয় জনতা মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে এলোপাতাড়ি মারধর করতে থাকে। এ সময় পুলিশ কৌশল অবলম্বন করে ওই ব্যক্তিকে বাদাঘাট পুলিশ ক্যাম্পে নিয়ে আসে। পরে তাকে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আতিকুর রহমান জানান, ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। আমরা মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছি। এখনো এই ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায়নি।
পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান বলেন, এসব গুজবে স্থানীয় এলাকাবাসী যাতে কর্ণপাত না করে এবং এলাকায় সন্দেহভাজন কাউকে ঘুরাফেরা করতে দেখলে তাকে মারধর না করে নিকটস্থ থানা অথবা ফাঁড়িতে জানানোর জন্য আহ্বান করছি। জেলার সবকটি থানায় মাইকিং করে এসব বিষয়ে আপামর জনসাধারণকে সচেতন করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী