শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ০৯:২০ অপরাহ্ন

Notice :

বাস মালিক সমিতির অনৈতিক ধর্মঘটের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ার আহ্বান

স্টাফ রিপোর্টার ::
সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কে বিআরটিসি বাস সার্ভিস বন্ধ করার লক্ষ্যে আগামী ২৩ জুন থেকে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে সুনামগঞ্জ-সিলেট বাস মালিক সমিতি। এই অনৈতিক ধর্মঘটের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটি। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) সন্ধ্যায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধা জগৎজ্যোতি পাবলিক লাইব্রেরিতে সংগঠনের সাপ্তাহিক সভা থেকে এ আহ্বান জানানো হয়।
সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি অ্যাড. বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বিজন সেন রায়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা বিকাশ রঞ্জন চৌধুরী ভানু, সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান, সহ-সভাপতি সুখেন্দু সেন, অধ্যাপক চিত্তরঞ্জন তালুকদার, অধ্যক্ষ রবিউল ইসলাম, ডা. মোর্শেদ আলম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সালেহিন চৌধুরী শুভ, সাংগঠনিক সম্পাদক নির্মল ভট্টাচার্য্য, একে কুদরত পাশা, এমরানুল হক চৌধুরী, বাঁধবিষয়ক সম্পাদক ওবায়দুল হক মিলন, মৎস্য বিষয়ক সম্পাদক গোলাম মওলা তোহা, ত্রাণ ও দুর্যোগ বিষয়ক সম্পাদক শামস শামীম, সদর উপজেলা আহ্বায়ক চন্দন রায়, যুগ্ম আহ্বায়ক প্রভাষক দুলাল মিয়া, সদস্য সচিব শহীদ নূর আহমদ প্রমুখ।
হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু জানান, বিআরটিসি বাস সুনামগঞ্জ-সিলেট রাস্তায় বন্ধ করার জন্য ২৩ জুন থেকে হরতাল আহ্বানের তীব্র নিন্দা করা হয়েছে সংগঠনের সাপ্তাহিক সভায়। পাশাপাশি সুনামগঞ্জ-সিলেট বাস মালিক সমিতির অনৈতিক হরতাল আহ্বানের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য জনগণকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়। একই সাথে প্রশাসনকে এই অরাজকতার ব্যাপারে কঠোর পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করা হয়। হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলনের উপজেলা, ইউনিয়ন শাখার কর্মীগণকে জনগণকে নিয়ে অরাজকতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ার অনুরোধ করা হয়েছে।
এদিকে, সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কে বিআরটিসি বাস সার্ভিস বন্ধের লক্ষ্যে ডাকা ধর্মঘটকে প্রত্যাখ্যান করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মন্তব্য করেছেন সচেতন ব্যক্তিবর্গ। তারা পরিবহন সেক্টরে নৈরাজ্যকারীদের কঠোর হাতে দমনের আহ্বান জানিয়েছেন।
অরুণ চন্দ্র দে লিখেছেন, এই ধর্মঘট শক্ত হাতে প্রতিরোধ করতে হবে এবং সমুচিত জবাব দিতে হবে। যাতে ভবিষ্যতে এধরনের অনৈতিক কার্যকলাপ থেকে বাস মালিক সমিতি বিরত থাকে এবং মানুষকে জিম্মি করতে না পারে।
হেলাল উদ্দিন মন্তব্য করেছেন, এদেরকে শক্ত হাতে প্রতিহত করতে হবে।
মোসাহিদ আলী লিখেন, সহমত। সড়ক সন্ত্রাসীদের কাছে জিম্মি হওয়া যাবে না।
সায়েম সাঈদ লিখেছেন, এখন প্রতিবাদ করার উপযুক্ত সময়। সুনামগঞ্জ জেলার সর্বস্তরের জনগণকে এই নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।
মনিরুল ইসলাম মনির তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে ফেসবুকে লিখেছেন, প্রয়োজনে লাঠি নিয়ে মাঠে নামতে হবে। তারপরও ওদের অরাজকতা ঠেকাতে হবে।
আশরাফ শাহীন লিখেছেন, সব শ্রেণি পেশার মানুষকে নিয়ে নৈরাজ্য প্রতিরোধ কমিটি করা দরকার।
অমিত ঘোষ লিখেন, দলমতের ঊর্ধ্বে উঠে সুনামগঞ্জবাসীর উচিত এই জনবিরোধী ধর্মঘটকে প্রতিরোধ করা এবং প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের উচিত মালিক সমিতির অবৈধ দাবির কাছে মাথা নত না করে জনগণের সুবিধার্থে বিআরটিসি বাস চালু রাখা।
হাবিবুর রহমান লিখেছেন, গণআন্দোলন গড়ে তুলতে হবে এবং যারা এ অরাজক পরিস্থিতির ডাক দিয়েছে তাদের যে পরিবহন (বাস) রাস্তায় চলাচল করে সেগুলা চিরতরে বন্ধ করে দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।
শামীম হাসান ফেসবুকে লিখেছেন, স¤পূর্ণভাবে সহমত প্রকাশ করছি। স্বার্থান্বেষীদের প্রতিরোধ করার সময় এসে গেছে।
আব্দুর রউফ লিখেছেন, আমাদের সুনামগঞ্জের উন্নয়নে যারা বাধা দিতে আসবে, তাদেরকে সম্মিলিতভাবে সমুচিত জবাব দিতে হবে।
লিটন সরকার লিখেছেন, মুড়ির টিনের মতো বাসগুলো চিরতরে বর্জন করতে হবে। ওরা ধর্মঘট দিলে সাধারণ জনগণ তা রুখবে। তারপর বিআরটিসি বাস চলবে, চলবেই…।
ওবায়দুর রহমান কুবাদ লিখেছেন, এর একটা বিহিত প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী