বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ১০:৫৭ অপরাহ্ন

Notice :

৯ উপজেলায় কঠোর নিরাপত্তা বলয়


শহীদনুর আহমেদ ::

আজ রোববার সুনামগঞ্জের ৯ উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ৯ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ২৮ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬৭ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩৫ জন প্রার্থী। সকাল ৮ থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত জেলার ৫৪১টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ১৪৪ জন প্রার্থীর বিপরীতে ভোট দিবেন ১৫ লক্ষ ৩৪ হাজার ৮০৩ জন ভোটার। নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে ৪ স্তরের নিরাপত্তা বলয়। পুলিশ ছাড়াও মাঠে থাকছে বিজিবি, র‌্যাব, আনসারসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা। নির্বাচনী এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখাসহ যেকোন অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতিটি বিভাগ তৎপর রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।
জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ৯ উপজেলায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশের ১৮৬১ জন সদস্য মোতায়েন থাকবেন। এর মধ্যে ১০১টি মোবাইল টিম, ১১টি স্ট্রাইকিং ফোর্স নিয়োজিত থাকবে। প্রতিটি স্ট্রাইকিং ফোর্সে ১ জন ওসি’র নেতৃত্বে থাকবে পুলিশের ১০জন সদস্য। সাধারণ ভোটকেন্দ্রে ১ জন ও অধিক গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ২ জন করে পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকবে। মোতায়েনকৃত পুলিশের মধ্যে পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ২ জন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ৭ জন, সহকারি পুলিশ সুপার পদমর্যাদার ৩ জন, পুলিশ পরিদর্শক পদমর্যাদার ৫৪ জন, এসআই পদ মর্যাদার ২০১ জন, এএসআই পদ মর্যাদার ২৩৫ জন ও কনস্টেবল পদমর্যাদার ১২৮৬ জন সদস্য নির্বাচনী আইনশৃংখলার কাজে নিয়োজিত থাকবেন বলে জানিয়েছে পুলিশ বিভাগ। এছাড়াও নির্বাচনী এলাকায় বাড়তি নজরদারিতে সাদা পোশাকে ডিবি, ডিএসবি’র সদস্যরাও দায়িত্ব পালন করবে বলে জানাগেছে।
বিজিবি ২৮ ব্যাটালিয়ন সূত্রে জানা যায়, ৯ উপজেলায় নির্বাচনী আইনশৃংখলা বিধানে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে মোতায়েন থাকবে ৪৫০ সদস্যের ২১ প্লাটুন বিজিবি। এর মধ্যে বাড়তি নিরাপত্তা বিধানে ছাতক উপজেলায় ৩ প্লাটুন ও বাকি ৮ উপজেলায় ২ প্লাটুন করে বিজিবি মোতায়েন করা হবে।
পুলিশ, বিজিবি’র সাথে নিরাপত্তা বিধানে মোতায়েন থাকবে র‌্যাব-৯ এর ১০০ সদস্য। পরিস্থিতি অনুযায়ী ৯ উপজেলায় স্ট্রাইকিং ফোর্স ও মোবাইল টিমে ভাগ করে দেয়া হবে এসব সদস্যদের। এছাড়াও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে সাদা পোশাকে র‌্যাব নিয়োজিত থাকবে বলে জানিয়েছে র‌্যাব -৯ কর্তৃপক্ষ। ভোটকেন্দ্রে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে মোতায়েন থাকবে ৬৪৯২ জন আনসার গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী সদস্য। প্রতি ভোট কেন্দ্রে পুলিশের সাথে ১২ জন আনসার কাজ করবে বলে জানিয়েছে পুলিশ বিভাগ।
নির্বাচনী আইনশৃংখলার ব্যাপারে পুলিশ সুপার মো. বরকতুল্লাহ খান বলেন, নির্বাচনী এলাকায় আইনশৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ৪ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। নিরাপত্তা বিধানে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাব, আনসারসহ সাদা পোশাকে একাধিক গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা মাঠে সার্বক্ষণিক তৎপর থাকবেন। যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি কঠোরভাবে দমন করা হবে।
এদিকে নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার। তিনি বলেন, সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্যে ভোটার, সমর্থক ও প্রার্থীদের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী