,

Notice :

সুনামগঞ্জ-১ আসন: মনোনয়ন প্রত্যাশী বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম চৌধুরী’র পদত্যাগ

ধর্মপাশা প্রতিনিধি ::
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সাবেক সদস্য ও সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুনামগঞ্জ-১ (ধর্মপাশা-জামালগঞ্জ ও তাহিরপুর) আসনের বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী রফিকুল ইসলাম চৌধুরী বিএনপি থেকে পদত্যাগ করেছেন।
শনিবার বিকেলে তিনি বিকল্প ধারা বাংলাদেশ দলে যোগ দিয়েছেন। তাঁর বাড়ি সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার সদর ইউনিয়নের দশধরী গ্রামে। নেতাকর্মীদের সঙ্গে কোনোরকম পরামর্শ না করে তিনি বিএনপি থেকে পদত্যাগ করায় এ নিয়ে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের তৃনমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।
ধর্মপাশা উপজেলা বিএনপির জ্যেষ্ঠ কয়েকজন নেতাকর্মী ও স্থানীয় সূত্রে সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রফিকুল ইসলাম চৌধুরী ওরফে ডা.রফিক চৌধুরী ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচনে অংশ নেন এবং আওয়ামী লীগ মনোনীত দলীয় প্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের কাছে পরাজিত হন।ধর্মপাশা উপজেলায় বিএনপি দুইভাগে বিভক্ত হলেও রফিকুল ইসলাম চৌধুরী সমর্থিত বিএনপির ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের একটি শক্ত অবস্থান রয়েছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার জন্য তিনি দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে দলীয় কার্যালয়ে তা জমা দেন। কিন্তু সুনামগঞ্জ-১ আসনে বিএনপির দলীয় প্রার্থী মনোনীত হওয়ার আগেই রফিকুল ইসলাম চৌধুরী শনিবার বিকেলে বিএনপি থেকে পদত্যাগ করেন এবং তিনি বিকল্প ধারা বাংলাদেশ দলে যোগদান করেন। এ খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ এলাকা,রাস্তাঘাট থেকে শুরু করে নানাস্থানে আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠে।
সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সদস্য ও ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোসাহিদ তালুকদার বলেন, আমি ২০০৬ সাল থেকে রফিকুল ইসলাম চৌধুরীর পাশে রয়েছি। তৃনমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সুসংগঠিত করার জন্য তাঁকে নিয়ে কাজ করেছি। ধর্মপাশা উপজেলায় তাঁর সমর্থিত বিএনপির অন্তত ৫৫ভাগ নেতাকর্মী রয়েছেন। দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে কোনো কথা না বলে তাঁর দল থেকে পদত্যাগ করার বিষয়টি কোনো অবস্থাতেই আমরা মেনে নিতে পারছি না।
ধর্মপাশা উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলী আমজাদ বলেন, দেশের মানুষের প্রয়োজনে গণতন্ত্র রক্ষায় সুনামগঞ্জ-১ আসনে বিএনপির নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ রয়েছেন। তাই রফিকুল ইসলাম চৌধুরী বিএনপি ছেড়ে অন্য দলে যোগ দিলেও এতে বিএনপির কোনোরকম ক্ষতি হবে না।
এ ব্যপারে রফিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, সুনামগঞ্জ-১ আসনে দলীয় মনোনয়ন পাব সে লক্ষ্য নিয়েই এতদিন দিন রাত পরিশ্রম করেছি। সব সময় নেতাকর্মীদের পাশে থেকেছি। জেল-জুলুম ও মিথ্যা মামলায় শিকার হয়েছি। কোনো অপশক্তির কাছে আমি মাথা নত করিনি। যে লোক একযুগ ধরে মাঠে ছিলেন না তাঁকেই সুনামগঞ্জ-১ আসনে মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়টি চূড়ান্ত করা হয়েছে। বিএনপির হাই কমান্ডের দলীয় নেতারা আমার প্রতি সুবিচার করেননি। তাই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য বিএনপি থেকে পদত্যাগ করে বিকল্প ধারা বাংলাদেশ দলে যোগ দিয়েছি। দীর্ঘদিন একসঙ্গে কাজ করেছি তাই বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের তৃণমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা আমার প্রতি ক্ষোভ দেখানোটাই স্বাভাবিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী