,

Notice :

জামালগঞ্জ হাসপাতালের সরকারি বৃক্ষ নিধন

স্টাফ রিপোর্টার ::
উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই গত ২৮ অক্টোবর জামালগঞ্জ সদর হাসপাতালের আওতাধীন সরকারি বৃক্ষ নিধন করেছেন হাসপাতালের ওয়ার্ড বয় শাহ আলম। এই ঘটনায় হাসপাতালের অভ্যন্তরীণ স্টাফদের মাঝে তীব্র অসন্তোষ বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ২৮ অক্টোবর সকালে হাসপাতালের ওয়ার্ড বয় শাহ আলম হাসপাতালের পশ্চিম দিকে পুকুর পাড়ে থাকা বাড়ন্ত ৫টি মেহগনি গাছ কাটার সময় দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তা প্রহরী কান্তিরাজ দাস এতে বাধা দেন। এসময় শাহ আলম নিরাপত্তা প্রহরী কান্তিরাজকে বলেন এই বৃক্ষ তিনি কিনেছেন তাই কেটে নিচ্ছেন। পরে বিষয়টি হাসপাতালের প্রশাসনিক দায়িত্বে থাকা কর্তৃপক্ষের কাছে অবগত করেন কান্তিরাজ। পরে হাসপাতালের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা. মনিসর চৌধুরী, প্রধান সহকারী হীরক রঞ্জন গোস্বামী ও এমটিপিআই শৈলেন্দ্র দেবনাথকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এবং বিষয়টি উদ্ঘাটনের জন্য ডা. মো. নিয়াজ মোর্শেদকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে দেন। এব্যাপারে বৃক্ষ নিধনকারী ওয়ার্ড বয় শাহ আলম জানান, হাসপাতালে ডেপুটেশনে আসা অতিরিক্ত প্রধান সহকারী কাম হিসাব রক্ষক আনোয়ার হোসেন তালুকদারের নির্দেশে তিনি এই মেহগনি বৃক্ষগুলো কেটেছেন। তাকে ডালপালা প্রদানের লোভ দেখিয়ে এইসব বৃক্ষ কাটানো হয়েছে। অপরদিকে নিরাপত্তা প্রহরী কান্তিরাজ এই ঘটনা কর্তৃপক্ষকে অবগত করার কারণে কান্তিরাজ ও তার স্ত্রী অপর্ণা দাসকে তাদের বাসা থেকে ডেকে নিয়ে হুমকি ধামকি প্রদান করছেন ডেপুটেশনের প্রধান সহকারি আনোয়ার হোসেন তালুকদার। কান্তিরাজ স্ট্রোকের রোগি হওয়ার কারণে সঠিকভাবে কথা বলতে পারেন না। তার স্ত্রী অপর্ণা দাস জানান, বৃক্ষনিধনের কথা প্রকাশ করে দেওয়ায় আনোয়ার হোসেন তাদেরকে হুমকি ধামকি দিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করছেন। এসময় ডেপুটেশনে আসা অতিরিক্ত প্রধান সহকারী কাম হিসাব রক্ষক আনোয়ার হোসেনের সাথে অফিস চলকালীন যোগাযোগ করতে চাইলে অফিসে তাকে পাওয়া যায়নি। জানা যায়, তিনি হাসপাতাল সংলগ্ন মেহেরুন্নেসা ডায়াগনস্টিক সেন্টারের দায়িত্ব ও অন্যান্য নিজস্ব ব্যবসা বাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। যে কারণে তিনি হাসপাতালে আসেন না। এমনকি হাসপাতালে থাকা ইলেকট্রনিক হাজিরায় কোন ফিঙ্গারপ্রিন্টও নেই তার। এ ব্যাপারে জামালগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মনিসর চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বৃক্ষনিধনে জড়িতদের চিহ্নিতকরণের জন্য তদন্ত কমিটি করে দেয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পাবার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী