,

Notice :

পাকনা হাওরের : স্কিম গ্রহণ সংক্রান্ত জন-অংশগ্রহণমূলক মতবিনিময়

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি::
গতকাল বিকেলে জামালগঞ্জে পাকনা হাওরের ফেনারবাকঁ ইউনিয়ন অংশের স্কিম গ্রহণ সংক্রান্ত জন অংশগ্রহন মূলক মত বিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফেনারবাঁকইউনিয়নের জামালগঞ্জ অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন ফেনারবাকঁ ইউপি চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু তালুকদার। ইউনিয়ন সচিব অজিত কুমার রায়ের সঞ্চালনায় আগাম বন্যার হাত থেকে ফেনারবাঁক ইউনিয়ন অংশের স্কিম গ্রহন সংক্রান্ত জন অংশগ্রহন মূলক মত বিনিময় সভায় উন্মোক্ত আলোচনায় অংশগ্রহন করেন ফেনারবাকঁ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. মতিউর রহমান, জামালগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি ও হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও আন্দোলন জামালগঞ্জ শাখার সাধারণ সম্পাদক অঞ্জন পুরকায়স্থ, মুক্তিযোদ্ধা শ্রীকান্ত তালুকদার, ইউনিয়ন আঃ লীগ সভাপতি নুরুল হুদা চৌধুরী খোকন, ছাত্র নেতা জুলফিকার চৌধুরী রানা, প্রেসক্লাব কোষাধ্যক্ষ দিল আহমেদ, ইউপি সদস্য আলতু মিয়া, রঞ্জন তালুকদার, সমাজ সেবক শাহবুিদ্দন আহমদ , অখিল তালুকদার, কৃষক আখতার হোসেন, ফিরোজ আলী, আলমাছ মিয়াসহ সকল ইউপি সদস্য, সদস্যা ও সচেতন নাগরিকবৃন্দ।
ইউপি সচিব তার স্বাগত বক্তব্যে বলেন, বিগত বছরে ফেনারবাঁক ইউনিয়নে হাওর রক্ষা বাঁধ নির্মানে ৩৪টি পিআইসি কাবিটা প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছিল, চলতি বছরে উক্ত প্রকল্পগুলি কিভাবে বাস্তবায়ন করা যায় সেই স্কিম তৈরীতে জন অংশগ্রহণে মাধ্যমে মতামত প্রয়োজন। বক্তাগণ বলেন, ঢালিয়া স্লুইছ গেইট, গজারিয়া স্লুইছ গেইট, মড়লপুরের ঢালা, কাইলানির খাল, রাসেলের ঢালা, বগলাখালি , ফুলিয়াটানা কাউয়ার বাদা, যশমন্তপুরের ঢালাগুলি চলতি মৌসুমে পানি নিস্কাশনের জন্য খনন করা প্রয়োজন ও স্লুইস গেইটগুলির কপাট খুলে দেওয়া জরুরী। এছাড়াও হাওরের প্রয়োজনীয় প্রকল্প গ্রহণ ও অপ্রয়োজনীয় প্রকল্প বাতিল করার মতামত ব্যক্ত করা হয় । আগামী ২৪ অক্টোবর থেকে কৃষকদের স্বেচ্ছা শ্রমের বিত্তিতে খনন কাজ শুরু করার প্রস্তুতি নেওয়া হয়। আজকের মতামতের বিভিতে পাউবোতে প্রস্তাব পাঠানো সিন্ধান্ত গৃহিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী