,

Notice :

প্রগতিশীল আন্দোলনের নেতা মঈন উদ্দিন জালাল আর নেই: সিলেটে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন


স্টাফ রিপোর্টার::

সুনামগঞ্জ পৌর শহরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ড এলাকার বাসিন্দা বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ও যুব ইউনিয়নের সাবেক নেতা অ্যাডভোকেট মঈন উদ্দিন আহমদ জালাল (৫৫) আর নেই। তিনি গত বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ভারতের শিলংয়ের উডল্যা- হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। শুক্রবার সিলেটে জানাযা শেষে তাকে সিলেটেই দাফন করা হয়েছে। মঈন উদ্দিন আহমদ জালালের মৃত্যুতে শোকে স্তব্ধ সিলেট ও সুনামগঞ্জের প্রগতিশীল ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ।
পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মঈন উদ্দিন আহমদ জালাল ও তাঁর স্ত্রী সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. নাজিয়া চৌধুরী গত মঙ্গলবার শিলংয়ে গিয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে দ্রুত শিলংয়ের উডল্যা- হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
সুনামগঞ্জ ও সিলেট শহরের সব মহলের অত্যন্ত পরিচিত ও সজ্জন ব্যক্তি মঈন উদ্দিন আহমদ জালালের মৃত্যু সংবাদ সুনামগঞ্জ ও সিলেট শহরে পৌঁছালে বিভিন্ন মহলে শোকের ছায়া নেমে আসে। বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের সাবেক প্রেসিডিয়ামের সদস্য মঈন উদ্দিন আহমদ জালাল ছাত্র জীবন থেকেই ছাত্র ইউনিয়নের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ছাত্র ও যুব আন্দোলন করার সময়ে বিশ্ব ছাত্র-যুব পরিষদের সদস্য হিসেবে তিনি পৃথিবির অর্ধ শতাধিক দেশ ছাত্র-যুব সম্মেলনসহ বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন। তাঁর পিতা মরহুম মো. ইস্কন্দর আলী ও মাতা সিতারা খানম। তিনি শহরের পুরাতন বাসস্টেশন এলাকার জালালাবাদ ভবনের মালিক।
শুক্রবার বাদ জুমআ’ সিলেটের কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারে প্রগতিশীল আন্দোলনের অন্যতম নেতা এডভোকেট মঈন উদ্দিন আহমেদ জালালের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সর্বস্তরের মানুষ। শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে লাশবাহি ফ্রিজিং গাড়িতে করে মঈন উদ্দিন আহমেদ জালালের মরদেহ আনা হয় শহিদ মিনারে। বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন সিলেটের ব্যবস্থাপনায় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে স্থাপিত অস্থায়ী মঞ্চে বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগটনের পক্ষ থেকে মঈন উদ্দিন আহমেদ জালালের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয়। শুক্রবার বাদ জুম্মা হযরত শাহজালাল (র.) মাজার প্রাঙ্গণে তার প্রথম জানাযার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। বাদ আসর সিলেটের দক্ষিণ সুরমার তেতলী ইউনিয়নের ধরাধরপুর গ্রামে দ্বিতীয় জানাযার নামাজ শেষে তাঁকে পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।
মঈন উদ্দিন আহমদ জালালের মৃত্যুতে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের পক্ষ থেকে মঈন উদ্দিন আহমেদ জালালের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয়। শ্রদ্ধা নিবেদনের আগে সিলেটের কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারে মুঠোফোনে কথা বলে মঈন উদ্দিন আহমেদ জালালের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর। এসময় তিনি বলেন, মঈন উদ্দিন আহমেদ জালাল বিভিন্ন সঙ্কট ও দুঃসময়ে একজন প্রগতিশীল রাজনৈতিককর্মী হিসেবে সবসময় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনে তাঁর ভূমিকা স্মরণীয় উল্লেখ করে সংস্কৃতিমন্ত্রী মঈন উদ্দিন আহমেদ জালালের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন।
এদিকে সুনামগঞ্জের বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিবৃন্দ মঈন উদ্দিন আহমদ জালালের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন। তারা শোক সন্তপ্ত পরিবারের পক্ষ থেকে গভীর সমবেদনা জানান।
জেলা পরিষদ সদস্য নূরুল হুদা মুকুট, সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, মুক্তিযোদ্ধা বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু, পৌর মেয়র নাদের বখত, জেলা খেলাঘরের সভাপতি বিজন সেন রায়, মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান, শহিদ মুক্তিযোদ্ধা জগৎজ্যোতি পাঠাগারের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট সালেহ আহমদ, এডভোকেট রুহুল তুহিন, মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য শামস শামীম প্রমুখ শোক প্রকাশ করেছেন। তারা শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী