,

Notice :

আর্ন্তজাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত

‘তথ্যের অধিকার, সুশাসনের হাতিয়ার, তথ্যেই শক্তি, দুর্নীতি থেকে মুক্তি’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে সুনামগঞ্জে আন্তজার্তিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত হয়েছে।
রোববার সকাল ১০ টায় দিবস উপলক্ষে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) সুনামগঞ্জ এর সহযোগিতায় জেলা প্রশাসনের কার্যালয় হতে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এবছর দিবসের প্রতিপাদ্য ছিল ‘উত্তম আইনের সঠিক প্রয়াস: টেকসই উন্নয়নে মুক্ত সমাজ’। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: নুরুজ্জামান বলেন যে, তথ্য অধিকার আইন বাস্তবায়নের আগে দরকার তথ্য জানা। তথ্য জানা ছাড়া কোন ভাবেই তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ কাজে লাগানো সম্ভব নয়। তাই আজকের এই আলোচনা সভায় যে সকল তরুণ প্রজন্ম উপস্থিত আছেন তাদের কে বেশি বেশি করে তথ্য জানতে হবে। তাহলে তথ্য অধিকার আইনের মাধ্যমে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধি পাবে। নিজ উপজেলা ও জেলা থেকে শুরু করে যে যতবেশী তথ্য জানবে সে তত বেশী তথ্য অধিকার আইনের সুফল পাবে। কারণ সকল আইনে প্রশাসন জনসাধারণের উপর চাপ সৃষ্টি করে থাকলেও। একমাত্র তথ্য অধিকার আইনের মাধ্যমে জনসাধারণ প্রশাসনের উপর চাপ সৃষ্টি করতে পারে। তাই তথ্য জানার বিকল্প নাই। এছাড়াও সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষা অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম, সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের ডা. আবুল কালাম আজাদ, এ.এস.পি. মিজানুর রহমান, জেলা তথ্য অফিসার মো. আনোয়ার হোসেন, সনাক সভাপতি মো.গোলাম কিবরিয়া, সনাক সদস্য অধ্যাপক পরিমল কান্তি দে, নুরুর রব চৌধুরী, টিআইবি’র এরিয়া ম্যানেজার মো. মোরশেদ আলম প্রমুখ।
আলোচনা সভায় বক্তারা তথ্য অধিকার আইনের সঠিক বাস্তবায়নের জন্য জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা, ডিজিটাল ব্যবস্থাকে কাজে লাগিয়ে তথ্যর ব্যাপক প্রসার ঘটানো, সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের তথ্য কর্মকর্তা নিশ্চিত করা, তথ্য কর্মকর্তদের নামফলক স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানে লাগিয়ে রাখার আহব্বান জানানো হয়।
সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার পঞ্চানন বালা, সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রভাষক মো. আহসান শহীদ আনসারী, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা বাদল চন্দ্র বর্মণ, সহ-সভাপতি কানিজ সুলতানা, ধূর্জটি কুমার বসু, হাজী সৈয়দুর রহমান, অ্যাড. নাজনীন বেগম, স্বজন সদস্য পরিতোষ চন্দ্র রায়, সুনিল কান্তি দাস, মো: মোজাম্মেল হক জুনেদ, আশরাফুজ্জামান বাবলু, আকিক মিয়া, সরকারি বিভিন্ন অফিসের কর্মকর্তা, বিভিন্ন এনজিও প্রতিনিধি, স্কুল ও কলেজের ছাত্র-ছাত্রীসহ ইয়েস ও ইয়েস ফ্রেন্ডস সদস্যবৃন্দ। -সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী