,

Notice :

যারা উন্নয়নে বাঁধা হতে চায় তাদের ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ করুন-পীর মিসবাহ


স্টাফ রিপোর্টার::

সুনামগঞ্জ সদর ও বিশ্বম্ভরপুর আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ বলেছেন, আমার রাজনীতির পূর্ব শর্ত হচ্ছে উন্ন্য়ন, আমি সব সময়ই উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাসী। আমি কখনো হানাহানির রাজনীতিতে বিশ্বাস করিনা। প্রত্যেকটি এলাকায় আমি সাংসদ সদস্য হওয়ার পর থেকে অনেক উন্নয়ন করেছি। আর আমি চাই সাংসদ সদস্য থাকাকালীন যেসব এলাকার কিছু অসমাপ্ত কাজ আছে তা দ্রুত সমাপ্ত করার জন্য আমার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। আপনারা সবাই মিলেমিশে আমাকে সহায়তা করলে ইনশাআল্লাহ আমি গ্রামগুলোকে উন্নয়নমুখী মডেল গ্রাম হিসেবে তৈরী করতে পারব। আর যারা উন্নয়ন মুলক কাজে বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে চায় দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এদেরকে আপনারা প্রতিরোধ করুন। তিনি আরো বলেন, আজ থেকে এই গ্রাম গুলো বিদ্যুৎ’র আলোয় আলোকিত হয়েছে। সন্ধ্যার সূর্য ডুবার সাথে সাথে পৃথিবীটা যখন অন্ধকার হয়ে আসবে তখন আমাদের এই গ্রামগুলোতে আগের মত মোমবাতি জ্বালিয়ে তাদের সন্তানদের পড়ার জন্য হাতে বই তুলে দিতে হবেনা। আজকে থেকে বিদ্যুৎ’র আলোতে আমাদের ছেলে মেয়েরা পড়তে পারবে। তিনি বলেন, আর আপনারা বিদ্যুৎ’র জন্য কাউকে একটা টাকাও দিবেন না। আমিও এই বিদ্যুৎ’র জন্য বা কোন উন্নয়নের জন্য কারো কাছ থেকে কোন কমিশন কাইনা আপনারা ও এই বিদ্যুৎ’র জন্য কাউকে টাকা দিয়ে প্রতারিত হবেনা। আশা করি আমার সময়কালীন ভিতরে প্রত্যেকটি গ্রামে বিদ্যুৎ’র আলোয় আলোকিত হবে। এবং ইতিমধ্যে আমার নির্বাচনী এলাকায় সকল গ্রামে আমি বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছি। তবে আজকে যে গ্রামগুলোতে বিদ্যুৎ’র আলোয় আলোকিত হল এই বিদ্যুৎ ব্যবহারে আপনারা সর্তক থাকবেন। বিদ্যুৎ যেমন আর্শিবাদ তেমন অভিশাপ এই বিদ্যুৎ’র সুঁইচে হাত দেওয়ার সময় সর্তক থাকবেন কোথাও তার চিরে পরলে হাত দেওয়ার প্রয়োজন নেই। বিদ্যুৎ অফিসকে খবর দিবেন। বিদ্যুৎ অফিস এসে তার সরাবে। আমি সরাতে গেলে মৃত্যু মুখে ডলে পরতে পারেন সেজন্য বিদ্যুৎ থেকেও আপনাদের সর্তক থাকতে হবে। শনিবার বিকালে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার দুলভারচর পরগণার বাজারে শ্যামারকান্দি ফতেপুর, নয়াগাঁও, শান্তিপুর, রাজনগর, নয়া বারুখা, কচু খালি, গোপালগঞ্জ গ্রামে বিদ্যুৎ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আলেঅচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন। ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান রনজিৎ চৌধুরী রাজনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন, হাজী মজিত উল্লাহ পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক সত্যব্রত দাশ, বাদাঘাট দ. ইউপি চেয়ারম্যান এরশাদ আহমদ, সুনামগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ইন্সট্রাক্টর আব্দুল কদ্দুস, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা জাতীয় পার্টি নেতা হাবিলদার মোর্শেদ মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল কাদির, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা জাতীয় পার্টি সাধারণ সম্পাদক সজ্জাদুর রহমান সাজু, গৌরারং ইউপি জাতীয় পাটি সভাপতি শওকত আলী, হাজী মজিদ উল্লাহ পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফয়জুন নুর, জাতীয় পার্টি নেতা হিফজুর মিয়া কুরবাননগর ইউপি জাতীয় পার্টির আহবায়ক আলীনূর জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পাটির যুগ্ন আহবায়ক ছাব্বির আহমদ ও এরশাদ মিয়া, ইউপি সদস্য মনছুর নুর চৌধুরী প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী