,

Notice :

ভুয়া ডাক্তার ও তার সহযোগীকে দণ্ড


দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি ::

দোয়ারাবাজারে এক ভুয়া ডাক্তার ও তার সহযোগীকে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দণ্ড প্রাপ্ত ভুয়া ডাক্তার অপু মহালদার (৩০) হবিগঞ্জ সদর উপজেলার সার্কিট হাউজ রোড এলাকার অরেন্দ্র মহালদারের পুত্র। এছাড়া তার সহযোগী মো. আব্দুস সালাম (২৮) তাহিরপুর উপজেলার দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের বুরুঙ্গাপাড়া গ্রামের জহিরুল ইসলামের পুত্র।
বৃহস্পতিবার বিকেলে দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মহুয়া মমতাজ ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ভুয়া ডাক্তার অপু মহালদারকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদ- ও তার সহযোগী আব্দুস সালামকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।
জানাযায়, বৃহস্পতিবার উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের চক বাজার এলাকা থেকে ভুয়া ডাক্তার অপু ও তার সহযোগী সালামকে এলাকাবাসী আটক করে সুনামগঞ্জ ড্রাগ সুপার সিকদার কামরুল ইসলাম ও অফিস সহকারি ফাহিম মিয়ার কাছে সোপর্দ করেন। পরে আটককৃতদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়।
এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মহুয়া মমতাজ ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ভুয়া ডাক্তার ও তার সহযোগীকে দণ্ড প্রদান করেন।
একই দিনে উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের রামসাইরগাঁও গ্রামের মাসুক মিয়ার পুত্র কামরুল ইসলাম (২৫) বাংলাবাজারে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় এবং ব্যবসায়ীদের উপর হামলা করায় বাজারের ব্যবসায়ী সমিতির লোকজন তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন।
সন্ধ্যায় উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রশান্ত কুমার বিশ্বাস ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে কামরুল ইসলামকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।
এদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে ১৪লক্ষ টাকা জরিমানাসহ এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিকে গ্রেফতার করেছে দোয়ারাবাজার থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত সাজাপ্রাপ্ত আসামি হলো লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের আকিলপুর গ্রামের সুলতান আলীর পুত্র মো. আনোয়ার হোসেন (৪০)। তাকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে লক্ষ্মীপুর বাজার এলাকা থেকে দোয়ারাবাজার থানার এএসআই সুমন অধিকারী ও বজলুল করিম গ্রেফতার করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী