,

Notice :

বিশ্বকবি ও জাতীয় কবিকে স্মরণ

স্টাফ রিপোর্টার::
বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ৭৭তম প্রয়াণ দিবস ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪২তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে শুক্রবার সন্ধ্যায় আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অ্যাড. দেবদাস চৌধুরী রঞ্জন-এর সভাপতিত্বে ও জেলা কালচারাল অফিসার আহমেদ মঞ্জুরুল হক চৌধুরী পাভেলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. নুরুজ্জামান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষক জাকির হোসেন, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা বাদল চন্দ্র বর্মণ, শিল্পী শান্তিময় ভট্টাচার্য্য।
বক্তারা বলেন, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ২২ শে শ্রাবণের সূর্যের আলো দেখেন নাই কিন্তু তিনি নিজেই সূর্যের আলো হয়ে জ্বলে আছেন বাঙালির হৃদয়ে। জাতীয় কবি কাজী নজরুল দেশ ও দেশের মানুষকে ভালবেসে ছিলেন তার সৃষ্টিকর্মই তাঁর প্রমাণ।
বক্তারা আরো বলেন, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কাছে বাঙালি জাতি চিরঋণী। কবিগুরু বাঙালিকে দিয়েছেন বাঙালির জাতিসত্তার পরিচয়। আর সব অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে বিদ্রোহী কণ্ঠে প্রতিবাদ করেছেন নজরুল।
বক্তারা বলেন, রবীন্দ্রনাথ আমাদের জাতীয় সঙ্গীত লিখেছেন, আর নজরুল ‘বিদ্রোহী’ কবিতার মাধ্যমে সব অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও নজরুলকে ধারণ করলে এ জাতি কখনও বিভ্রান্ত হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী