,

Notice :
«» সোমবার শহীদ সিরাজ লেকে ‘ইত্যাদি’র দৃশ্যায়ন «» জামালগঞ্জের দৌলতা ব্রীজ মরণ ফাঁদ «» রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন অ্যাড. রুমেন «» আয়কর মেলা সমাপ্ত : ৪ দিনে কর আদায় সাড়ে ১২ লক্ষ টাকা «» ‘নীলাদ্রি’ নয় শহীদ সিরাজ লেক নামে ‘ইত্যাদি’ অনুষ্ঠানে প্রচারের জন্য স্মারকলিপি «» নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন : সহকারি রির্টানিং অফিসারের কাছে অভিযোগ «» মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিসংরক্ষণ কর্মকে প্রবল ও বেগবান করুন «» কেন্দ্রের দিকে তাকিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা «» নির্বাচনী মাঠ ফাঁকা : প্রার্থীরা ঢাকায়, উৎকণ্ঠা উত্তেজনায় কাটছে প্রতি মুহূর্ত «» প্রশাসনের উদ্যোগ : প্রার্থীদের নির্বাচনী ব্যানার পোস্টার অপসারণ

দিরাইয়ে কমিউনিস্ট পার্টির সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার ::
দিরাই উপজেলায় গতকাল বুধবার বিকেলে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সমাবেশ হয়েছে। দিরাই পৌর শহরের থানা রোডে অনুষ্ঠিত এই সমাবেশে সুনামগঞ্জ-২ আসনে (দিরাই ও শাল্লা) সিপিবির প্রার্থীকে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়।
এই আসনে কমিউনিস্ট পার্টির সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে মাঠে কাজ করছেন দিরাই ডিগ্রি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি (ভিপি) ও দলের সদস্য নিরঞ্জন দাস খোকন। তিনি বেশ কিছুদিন ধরেই দিরাই ও শাল্লা উপজেলায় গণসংযোগ করছেন। গতকাল বুধবার সমাবেশে দলের প্রার্থী হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁকে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়।
কমিউনিস্ট পার্টির দিরাই শাখার নেতা দেবব্রত চৌধুরী দোলনের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন দলের কেন্দ্রীয় সভাপতিম-লীর সদস্য আবদুল্লাহ আল কাফি রতন। এ ছাড়াও বক্তব্য দেন জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এনাম আহমেদ, দলের প্রার্থী নিরঞ্জন দাস খোকন, জেলা যুব ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি শাহজালাল সুমন, বর্তমান সভাপতি তারেক চৌধুরী প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবদুল্লাহ আল কাফি রতন বলেন, নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দিতে হবে। দেশের মানুষ দুই জোটের বাইরে বিকল্প শক্তিকে ক্ষমতায় দেখতে চায়। এই বিকল্প হচ্ছে দেশের কৃষক, শ্রমিক ও খেটেখাওয়া মানুষের সংগঠন কমিউনিস্ট পার্টি। তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ যে সব প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় গিয়েছিল তা পূরণ করেনি। তাদের নেতা-কর্মীরা এখন লুটপাটে ব্যস্ত। অন্যদিকে বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। জনগণের স্বার্থে তাদের কোনো কর্মসূচি নেই।
সম্প্রতিক ছাত্র আন্দোলনের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, সরকারের প্রধান কথা দিয়ে কথা রাখেননি। কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় তিনি যে ঘোষণা দিয়েছিলেন সেটার বাস্তবায়ন এখনো হয়নি। একইভাবে নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে থাকা শিক্ষার্থীদের প্রথমে প্রশংসা করলেও এখন তাদের নির্যাতন করা হচ্ছে। ইতিহাসের শিক্ষা হচ্ছে, ছাত্রসমাজের সঙ্গে বেইমানী করে কেউ কখনো ক্ষমতায় থাকতে পারেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী