,

Notice :
«» সোমবার শহীদ সিরাজ লেকে ‘ইত্যাদি’র দৃশ্যায়ন «» জামালগঞ্জের দৌলতা ব্রীজ মরণ ফাঁদ «» রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন অ্যাড. রুমেন «» আয়কর মেলা সমাপ্ত : ৪ দিনে কর আদায় সাড়ে ১২ লক্ষ টাকা «» ‘নীলাদ্রি’ নয় শহীদ সিরাজ লেক নামে ‘ইত্যাদি’ অনুষ্ঠানে প্রচারের জন্য স্মারকলিপি «» নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন : সহকারি রির্টানিং অফিসারের কাছে অভিযোগ «» মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিসংরক্ষণ কর্মকে প্রবল ও বেগবান করুন «» কেন্দ্রের দিকে তাকিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা «» নির্বাচনী মাঠ ফাঁকা : প্রার্থীরা ঢাকায়, উৎকণ্ঠা উত্তেজনায় কাটছে প্রতি মুহূর্ত «» প্রশাসনের উদ্যোগ : প্রার্থীদের নির্বাচনী ব্যানার পোস্টার অপসারণ

সহকারী শিক্ষক নিয়োগ : চূড়ান্ত ফল প্রকাশের সময় পেছালো

সুনামকণ্ঠ ডেস্ক ::
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাজস্ব খাতভুক্ত ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৪’ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশের সময় পেছানো হয়েছে। ৬ সেপ্টেম্বর এ ফল প্রকাশের কথা ছিল। এখন তা পিছিয়ে আগামী সপ্তাহে প্রকাশের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে।
ফলাফল প্রকাশের সময় পেছানোর বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আসিফ উজ জামান বলেন, বৃহ¯পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) সহকারী শিক্ষক নিয়োগের চূড়ান্ত ফল প্রকাশের কথা থাকলে তা পেছানো হয়েছে। এ ফল আগামী সপ্তাহের শেষের দিকে প্রকাশ করা হতে পারে।
তিনি বলেন, ৮ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস উদযাপন নিয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে নানামুখী কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। সেসব কাজে সকল কর্মকর্তারা ব্যস্ত। এ কারণে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ফলাফল পেছানো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
তবে মন্ত্রণালয় ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) সংশ্লিষ্ট একাধিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফলের কাজ শেষ হলেও কোটাধারী প্রার্থীদের ফল তৈরির কাজ শেষ করা সম্ভব হয়নি। এটি আগামী সপ্তাহের রোব বা সোমবার শেষ করা সম্ভব হবে। মন্ত্রণালয় চাইলে এ ফল আগামী বৃহ¯পতিবারের আগেই প্রকাশ করতে পারবে।
ডিপিই থেকে জানা গেছে, রাজস্ব খাতভুক্ত ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০১৪’ দীর্ঘদিন স্থগিত থাকার পর চলতি বছর ২০ এপ্রিল লিখিত পরীক্ষা শুরু হয়। চারটি ধাপে সারাদেশের ৬১টি জেলায় লিখিত পরীক্ষা হয়। মোট ১৩ লাখ আবেদন করলেও লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেন প্রায় সাড়ে ৭ লাখ প্রার্থী। তার মধ্যে ২৯ হাজার ৫৫৫ জন উত্তীর্ণ হন। নিয়োগ বিধিমালা অনুযায়ী আসন প্রতি তিনজন প্রার্থী লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তার মধ্যে দুইজন নারী ও একজন পুরুষ প্রার্থীকে নির্বাচন করা হয়। গত ৮ জুলাই সারাদেশের সব জেলার লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়। ২৯ জুলাই থেকে ১৫ আগস্ট পর্যন্ত মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী