,

Notice :
«» জেলা প্রশাসকের সাথে রিপোর্টার্স ইউনিটি নেতৃবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষাৎ «» সরকারি প্রতিষ্ঠানে সেবার মান আরো বৃদ্ধি করতে হবে : জেলা প্রশাসক «» জগন্নাথপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে ভুল রিপোর্ট প্রদানের অভিযোগ «» কালনী নদী থেকে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির লাশ উদ্ধার «» স্বেচ্ছাসেবক লীগের আনন্দ মিছিল «» সরকারি কলেজের ৭৫ বছর পূর্তি উদযাপনে জরুরি সভা আজ «» দুর্গাপূজা উপলক্ষে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে «» নতুন এমপিওভুক্তির আবেদন ৯৪৯৮, চলছে যাচাই-বাছাই «» দ্বিমুখী ক্ষতি থেকে অভিভাবকদের রক্ষা করুন «» টাঙ্গুয়ার হাওর : নৌ মালিক-চালকদের কাছে জিম্মি পর্যটকরা

জেলা ও দায়রা জজ শহীদুল আলম ঝিনুক-কে বিদায় সংবর্ধনা

স্টাফ রিপোর্টার ::
জেলা ও দায়রা জজ শহীদুল আলম ঝিনুক-এর বদলি উপলক্ষে তাঁকে বিদায় সংবর্ধনা দিয়েছেন জজশিপের বিচারক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা জজ কার্যালয় প্রাঙ্গণে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল-মামুনের সভাপতিত্বে এবং সদর সিনিয়র সহকারি জজ আদালত-এর বিচারক মোহাম্মদ ইকবাল হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন (জেলা জজ) নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল সুনামগঞ্জের বিচারক মো. জাকির হোসেন, ভারপ্রাপ্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সাইফুর রহমান মজুমদার, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মুহাম্মদ আমিরুল ইসলাম, সহকারি জজ মোহাম্মদ নাজমুল হোসাইন, জেলা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. খোরশেদ আলম, প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিমাংশু শেখর তালুকদার, জজকোর্টের নাজির দেবাশীষ দে, নাজির মো. এনামুল হক, সেরেস্তাদার মো. কামরুজ্জামান, বেঞ্চ সহকারি মো. রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
বিদায়ী জেলা ও দায়রা জজ শহীদুল আলম ঝিনুক বিচারক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশে বলেন, সকল কার্যক্রম সুনামগঞ্জবাসীর স্বার্থে আপনারা করবেন। আমাকে এভাবে সংবর্ধনা দেয়ায় আমার হৃদয় আজ উৎফুল্ল। আমি আজ আনন্দিত। গর্বিত, মুগ্ধ। কাজের জন্য আপনাদের অনুপ্রেরণা দিয়েছি। মনোযোগ দিয়ে কাজ করবেন।
তিনি আরো বলেন, আমাদের দেশ স্বাধীন না হলে কেউ আমরা বিচার কার্যক্রম করতে পারতাম না, চাকুরি করতে পারতাম না। দেশের প্রতি মমত্ববোধ রেখে দেশের প্রতি কৃতজ্ঞতাবোধ রেখে নিজ নিজ দায়িত্ব এবং কাজ করে যাবেন।
এর আগে বিদায়ী জেলা ও দায়রা জজ শহীদুল আলম ঝিনুককে সম্মাননা স্মারক ও বিভিন্ন উপহারসামগ্রী প্রদান করা হয়। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন জারীকারক মো. কামাল হোসেন ও গীতা পাঠ করেন বেঞ্চসহকারি ভানু চক্রবর্তী। এসময় উভয় এজলাসের বিচারক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী