মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১১:৪১ পূর্বাহ্ন

Notice :

দিরাইয়ে ইউপি নির্বাচন: দলীয় মনোনয়ন নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

দিরাই প্রতিনিধি ::
আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দিরাই উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন নিয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। দলীয় মনোনয়ন থেকে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র ত্যাগী ও প্রবীণ নেতা বাদ পড়েছেন। আওয়ামী লীগের ৩ বর্তমান চেয়ারম্যানসহ ত্যাগী ও প্রবীণ নেতারা চূড়ান্ত মনোনয়ন তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন। অধিকাংশই নতুন মুখ নৌকা প্রতীক পেয়েছেন। অপরদিকে বিএনপি’র বর্তমান ৩ চেয়ারম্যানসহ ত্যাগী ও প্রবীণ নেতারা বাদ পড়েছেন ৯টি ইউনিয়নের সবাই নতুন মুখ।
আওয়ামী লীগে করিমপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আছাব উদ্দিন সরদার ও ভাটিপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী
ব্যতীত বাকি ৭ ইউনিয়নেই চেয়ারম্যান পদে নতুন মুখ। বিএনপি’র সরমঙ্গল ইউনিয়নে দিরাই উপজেলা ছাত্র শিবিরের সাবেক সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন জুয়েল ও বর্তমান ইউনিয়ন বিএনপি সভাপতি আব্দুর রহিম ও কুলঞ্জ ইউনিয়নে প্রবাসী মুজিবুর রহমানসহ সবকটি ইউনিয়নে নতুন মুখ দলীয় প্রার্থী হওয়ায় স্থানীয় নেতা-কর্মী ও ভোটারদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।
জগদল ইউনিয়নের একাধিক নেতাকর্মী ক্ষোভের সাথে বলেন, আমরা প্রথমে শুনলাম আমাদের নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুস সালামকে মনোনয়ন দিয়েছেন। হঠাৎ করে শুনলাম তাঁকে বাদ দিয়ে এমন একজনকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে যিনি সব সময় সিলেটে অবস্থান করেন। এলাকার মানুষের সাথে যার তেমন যোগাযোগ নেই। আসন্ন নির্বাচনে এর বিরূপ প্রভাব পড়বে বলে তাঁরা মনে করছেন।
জানা গেছে, মনোনয়ন বঞ্চিত অনেক নেতাই আসন্ন নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করবেন।
এদিকে তাড়ল ইউনিয়নের অনেক আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা জানান, ৩ বারের চেয়ারম্যানকে বাদ দিয়ে অল্প বয়সী ভোটারদের কাছে নতুন মুখ একজনকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। আমাদের ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র প্রার্থী দু’জনই নতুন। এখানে ভোটের লড়াই হবে বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি বিদ্রোহী প্রার্থী নুরুল হক ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক চেয়ারম্যান আকিকুর রেজার মধ্যে।
সরমঙ্গল ইউনিয়নের বিএনপি’র নেতাকর্মীরা জানান, আমাদের দলের বর্তমান জনপ্রিয় চেয়ারম্যান ও ঐতিহ্যবাহী চৌধুরী পরিবারের সন্তান এহসান চৌধুরীকে বাদ দিয়ে দিরাই উপজেলা ছাত্র শিবিরের সাবেক সভাপতিকে কেন বিএনপির দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে তা আমরা বুঝতে পারছি না।
কুলঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপি’র ত্যাগী নেতাকর্মীরা জানান, যারা দলের দুর্দিনে মামলা হামলা মাথায় নিয়ে দলের জন্য কাজ করেছে তাদেরকে বাদ দিয়ে প্রবাসীকে দলীয় মনোনয়ন কেন দেয়া হল তা আমরা বুঝতে পারছি না।
এদিকে, দলীয় মনোনয়ন পাওয়া চেয়ারম্যান প্রার্থীদের কর্মী ও সমর্থকরা খুশি হয়েছেন। তাঁরা বলছেন, সময় বিবেচনায় দলের শীর্ষনেতৃবৃন্দ যথাযথ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী