বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১১:৪৭ পূর্বাহ্ন

Notice :

আগামী অর্থ বছরেই শুরু হবে ১৪০ কোটি টাকা ব্যয়ে সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়ক উন্নয়নের কাজ

বিশেষ প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জ সিলেট-সড়ক প্রশস্থকল্পে সরকার বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে। আগামী অর্থ বছরেই ১৪০ কোটি ৬৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প’ নামে সড়ক ও সেতু মন্ত্রণায় কাজ করবে। গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক নির্বাহী পরিষদ (একনেক) বৈঠকে এ সংক্রান্ত প্রকল্পটি অনুমোদন লাভ করেছে। সুধীনজন জানিয়েছেন এ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে সুনামগঞ্জ সিলেট সড়কের দীর্ঘদিনের যাতায়াত ভোগান্তি কমবে। সহজে ও স্বল্প সময়ে জেলাবাসী বিভাগীয় শহর সিলেটসহ রাজধানী ঢাকায় যাতায়াত করতে পারবেন। এই প্রকল্পের ফলে সুনামগঞ্জ সিলেট সড়ক ১৮ ফুট প্রস্ত থেকে ২৪ ফুট প্রস্তে উন্নীত হবে বলে জানিয়েছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।
উল্লেখ্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১০ সনে নভেম্বর মাসে তাহিরপুরে কৃষক বর্তুকি প্রদান অনুষ্ঠানে এ সড়ক সংস্কারের ঘোষণা দিয়েছিলেন। ‘প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত অগ্রাধিকার প্রকল্প’ এর কারণেই একনেকে অনুমোদন লাভ করেছে বলে জেলার একাধিক সাংসদ জানিয়েছেন। তাছাড়া বর্তমান সরকার সুনামগঞ্জ সিলেট সড়কের ঝুকিপূর্ণ সবগুলো সেতু নির্মাণ করে জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থাকে সহজ করেছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।
মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ প্রকল্পসহ আরো সাতটি প্রকল্প অনুমোদন লাভ করে।
সুধীজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিএনপি নেতৃত্বাধীন গত চারদলীয় জোট সরকারের আমলে সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়ক সংস্কারের একটি উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বিএনপি ও চারদলীয় জোটের স্থানীয় নেতাদের উদাসীনতার কারণে ওই প্রকল্প বাতিল হয়ে যায়। ২০০৭ সনে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে তত্বাবধায়ক সরকারের যোগাযোগ উপদেষ্টা আব্দুল মতিন যোগাযোগ উন্নয়ন নিয়ে নাগরিক মতবিনিময়সভা করেন। ওই সভায় নাগরিকবৃন্দ সুনামগঞ্জ সিলেট সড়ক প্রশস্থকরণ, ঝুঁকিপূর্ণ সেতু নির্মাণসহ সড়ক উন্নয়নে বিশেষ উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানান। কিন্তু রহস্যজনক কারণে সুনামগঞ্জ-সিলেট মহাসড়ক প্রকল্প প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ের বৈঠকে উত্থাপন করা হলেও বাতিল করা হয়। ফলে হতাশ হন জেলাবাসী। দীর্ঘদিন পর আ.লীগ সরকারের সময়ে সড়ক উন্নয়নে নানা প্রকল্প নেওয়া হয়।
আ.লীগের একাধিক নেতা-কর্মী জানান, ২০১০ সনের নভেম্বর মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাহিরপুরে কৃষি ভর্তুকি প্রদান অনুষ্ঠানে সুনামগঞ্জ সিলেট সড়ক উন্নয়নের ঘোষণা দেন। ঘোষনা অনুযায়ী এ সড়কে ষাটের দশকে নির্মিত ১৪টি সেতু নতুন করে নির্মাণ করা হয় আ.লীগের গত আমলেই। এবার প্রধানমন্ত্রীর সেই ঘোষণার আলোকেই ‘প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত অগ্রাধিকার প্রকল্প’ থেকে একনেকে সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন লাভ করে।
সড়ক ও জনপথ বিভাগ জানিয়েছে আগামী অর্থ বছর থেকে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে। সুনামগঞ্জ থেকে সিলেট পর্যন্ত রাস্তাটি আঞ্চলিক মহাসড়ক হিসেবে ১৮ফুট থেকে ২৪ ফুটে উন্নীত হবে। তাছাড়া এই প্রকল্পে সিলেট জোনের একটি সেতুও নির্মিত হবে। সংশ্লিষ্টরা জানান, এই প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হলে সুনামগঞ্জ জেলাবাসীর যোগাযোগ উন্নয়ন মাইলফলকে পরিণত হবে। দুর্ভোগের যাতায়াতের বদলে সহজে ও কম সময়ে জেলাবাসী সিলেট বিভাগীয় শহর ও ঢাকায় যাতায়াত করতে পারবে।
সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়রুল আমীন বলেন, সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ এ রাস্তাটি প্রশস্থ হবে। ‘প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত অগ্রাধিকার প্রকল্প’ হিসেবে এটি একনেকে অনুমোদন লাভ করায় আগামী অর্থ বছরেই কাজ শুরু হবে। এটি বাস্তবায়ন হলে সুনামগঞ্জবাসীর যাতায়াত সহজ হবে।
সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ বলেন, আমি মহান জাতীয় সংসদে সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন সময়ে দাবি উত্থাপন করেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এই প্রকল্প অনুমোদন দেওয়ায় অভিনন্দন জানাই।
সুনামগঞ্জ-১ আসনের সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন বলেন, তাহিরপুরে ২০১০ সনে প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা সুনামগঞ্জ সিলেট সড়ক উন্নয়নের ঘোষণা দিয়েছিলেন। তার ঘোষণা অনুযায়ী গত আমলে এ সড়কের সবগুলো সেতু নতুন করে নির্মাণ করে দিয়েছেন। এবার ‘প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত অগ্রাধিকার প্রকল্প’ হিসেবে এ সড়কের কাঙ্খিত উন্নয়নে গতকাল একনেকসভা প১৪০ কোটি ৬৫ লাখ টাকার এ উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে সিলেট থেকে তাহিরপুরের লাউড়েরগড় পর্যন্ত সড়ক উন্নয়নে কাজ হবে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিডিও গ্যালারী

ভিডিও গ্যালারী